Home ব্রেকিং ঐক্যফ্রন্টের ইশতেহারে আওয়ামী লীগের প্রতিক্রিয়া

ঐক্যফ্রন্টের ইশতেহারে আওয়ামী লীগের প্রতিক্রিয়া


বিশ্ববিদ্যায়ল পরিক্রমা ডেস্ক : ঐক্যফ্রন্টের নির্বাচনী ইশতেহারকে ‘জাতির সঙ্গে তামাশা’ বলে আখ্যা দিয়েছে ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ। ইশতেহারে যুদ্ধাপরাধের বিচার চলমান রাখা এবং দুর্নীতির রোধের যে অঙ্গীকার করা হয়েছে তাকে অবিশ্বাস্য বলে আখ্যা দিয়েছে আওয়ামী লীগ। এ প্রসঙ্গে আওয়ামী লীগের দাবি ঐক্যফ্রন্টেই যুদ্ধাপরাধী রয়েছে এবং তাদের নেত্রীই দুর্নীতির দায়ে কারারুদ্ধ।

আজ সোমবার ঐক্যফ্রন্ট ইশতেহার ঘোষণার পর ধানমণ্ডিতে আওয়ামী লীগ সভানেত্রীর কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আব্দুর রহমান এসব কথা বলেন।

আব্দুর রহমান বলেন, যুদ্ধাপরাধীদের উত্তসূরিদের নিয়ে তারা ধানের শীষ প্রতীকে নির্বাচন করছে। আর যুদ্ধাপরাধীরা ঐক্যফ্রন্টের আশ্রয় প্রশ্রয়েই আছে। সুতরাং যুদ্ধাপরাধের বিচার তারা করবে এটা একটা হাস্যকর ব্যাপার, অবিশ্বাস্য।

তিনি বলেন, যারা যুদ্ধাপরাধীদের আশ্রয় প্রশ্রয় দিয়ে মনোনয়ন পর্যন্ত দিয়েছে, তারা কী করে এই যুদ্ধাপরাধীদের বিরুদ্ধে অবস্থান নেবে? এটা জনগণের সঙ্গে নেহায়েত প্রতারণা ছাড়া আর কিছু না।

জাতিকে বিভ্রান্ত করে এই ইশতেহারের মাধ্যমে ঐক্যফ্রন্ট ভোটারদের সঙ্গে তামাশা করছে বলে মন্তব্য করেন আব্দুর রহমান।

তিনি বলেন, তারেক জিয়া দুর্নীতির দায়ে দণ্ডিত, খালেদা জিয়া যখন ক্ষমতায় ছিলেন তখন হাওয়া ভবন তৈরি করে দুর্নীতির আখড়া তৈরি করেছিলেন। তিনি (খালেদা জিয়া) নিজে দুর্নীতির দায়ে দণ্ডিত। তাদের মুখে দুর্নীতিমুক্ত সমাজ গড়ার কথা ‘ভূতের মুখে রাম নাম।’

সংবাদ সম্মেলনে আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ জাহাঙ্গীর কবির নানক, সাংগঠনিক সম্পাদক আহমদ হোসেন, বিএম মোজাম্মেল হক, আ ফ ম বাহাউদ্দিন নাসিম, কেন্দ্রীয় সদস্য আনোয়ার হোসেনসহ আরো কয়েকজন নেতাকর্মী উপস্থিত ছিলেন।