Home ব্রেকিং বরিশাল -২ আসন আ’লীগের হামলা, বিএনপি প্রার্থীর গুলি : আহত-২৫

বরিশাল -২ আসন আ’লীগের হামলা, বিএনপি প্রার্থীর গুলি : আহত-২৫

SHARE

বরিশাল প্রতিনিধি : বরিশাল-২ (উজিরপুর-বানারীপাড়া) আসনে ধানের শীষের প্রার্থী সরদার সরফুদ্দিন আহমেদ সান্টুর প্রচারে ক্ষমতাসীন আ’লীগের নেতাকর্মীদের হামলার অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ সময় প্রার্থী নিজেই হামলা ঠেকাতে গুলি চালিয়েছেন। এ ঘটনায় উভয় পক্ষের ২৫ জন আহত হয়েছেন। প্রার্থী সান্টুও ইটের আঘাতে আহত হয়েছেন।

সোমবার বিকাল ৪টার দিকে গণসংযোগ শেষে ফেরার পথে বানারীপাড়া পৌরসভার সামনে এই ঘটনা ঘটেছে। এ ঘটনায় পুরো এলাকায় আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে। পরিস্থিতি সামাল দিতে ওই এলাকায় অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েনের পাশাপাশি সেনাবাহিনী ও বিজিবির টহল জোরদার করা হয়েছে।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, ধানের শীষের প্রার্থী সরদার সরফুদ্দিন আহমেদ সান্টু বানারীপাড়া উপজেলায় গণসংযোগ শেষে উজিরপুরে ফিরছিলেন। বানারীপাড়া পৌরসভার সামনে নৌকা প্রতীকের প্রার্থী শাহে আলম সমর্থকদের ৩০/৪০ জন সান্টুর গাড়িবহরে হামলা করেন। সান্টুর নির্বাচনের প্রধান সমন্বয়ক মাজেদ তালুকদার মান্নান বলেন, ‘পৌর এলাকার কাছাকাছি আসতেই যুব ও ছাত্রলীগ নেতাকর্মীরা বিএনপি প্রার্থীর গাড়িবহরে হামলা করে। তারা প্রার্থীকে বহনকারী মাইক্রোবাসসহ মোট তিনটি মাইক্রোবাস, দুটি মোটর সাইকেল ও সাতটি থ্রি-হুইলার ভাংচুর করে।’ তিনি জানান, ইটপাটকেলের আঘাতে প্রার্থী সরফুদ্দিন আহমেদ সান্টু, পৌর বিএনপির সভাপতি আহসান কবির, উপজেলা ছাত্রদলের সাধারণ সম্পাদক রিয়াজ মৃধা, মিজান ফকির, খোকন, নান্না হাওলাদার ১০-১২ জনের মতো আহত হন।

বিএনপির এই নেতা অভিযোগ করেন, এ ঘটনার পর ছাত্রলীগ ও যুবলীগ নেতাকর্মীরা বানারীপাড়া থেকে উজিরপুরের গুঠিয়া পর্যন্ত ধানের শীষ প্রতীকের প্রার্থীর সব নির্বাচনী কার্যালয় ভাংচুর করেছে।

এদিকে থানা আওয়ামী লীগের যুগ্ম আহ্বায়ক জাকির হোসেন বলেন, ‘বানারীপাড়া পৌরসভা সংলগ্ন বাসস্ট্যান্ডে নৌকা প্রতীকের নির্বাচনী কার্যালয় থেকে মিছিল বের করার জন্য আমরা অপেক্ষা করছিলাম। এসময় সরফুদ্দিন আহমেদ সান্টু গাড়িবহর নিয়ে এসে হঠাৎ করেই নেতাকর্মীদের উপর গুলি বর্ষণ শুরু করেন। এতে আমাদের আটজন নেতাকর্মী গুরুতর আহত হয়েছেন। তাদের মধ্যে তিনজনকে বরিশাল শেবাচিম হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।’ তিনি অভিযোগ করেন, ঘটনার পরে বিএনপি’র প্রার্থীর লোকেরা উপজেলার নারায়ণপুরে আওয়ামী লীগের প্রার্থীর নির্বাচনী কার্যালয়ে হামলা ও ভাংচুর করে। এসময় তারা সেখানে পাঁচটি মোটর সাইকেল ভাংচুর ও নেতাকর্মীদের পিটিয়ে আহত করে। পুরো বিষয়টি থানা পুলিশকে অবহিত করা হয়েছে বলে জানান আওয়ামী লীগের ওই নেতা।

এ প্রসঙ্গে বানারীপাড়া থানার অফিসার কর্মকর্তা (ওসি) খলিলুর রহমান বলেন, ‘বিএনপি প্রার্থী সরফুদ্দিন আহমেদ সান্টুর সঙ্গে আমার মুঠোফোনে যোগাযোগ হয়েছে। তিনি বলেছেন, আওয়ামী লীগের লোকজন তাদের গাড়িবহরে হামলার চেষ্টায় এগিয়ে আসে। তখন তিনি (সান্টু) চার রাউন্ড গুলি করেন। এতে আওয়ামী লীগের ৭/৮ জনের মতো আহত হয়েছেন। তাদের একজনের অবস্থা গুরুতর বলে শুনেছি। তবে বিএনপি প্রার্থীর গাড়ি ভাংচুর হয়েছে কি না সেটা আমার জানা নেই।’ বরিশাল জেলা পুলিশের মুখপাত্র অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মাঈনুল বলেন, ‘শুনেছি বানারীপাড়া পৌরসভা এলাকায় বিএনপি ও আওয়ামী লীগের দুই প্রার্থীর পাল্টাপাল্টি মিছিল হওয়ার কথা ছিল। এসময় সেখানে মারামারি এবং গোলাগুলি হয়েছে। এতে এলাকাজুড়ে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে। ঘটনার পরপরই সেখানে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।’