Home ব্রেকিং জনগন কেন্দ্রে গিয়ে ভোট দিতে না পারলে গণতন্ত্রের মৃত্যু হবে : মওদুদ...

জনগন কেন্দ্রে গিয়ে ভোট দিতে না পারলে গণতন্ত্রের মৃত্যু হবে : মওদুদ আহমদ


নোয়াখালী প্রতিনিধি : বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ও নোয়াখালী-৫ আসনের ধানের শীষের প্রার্থী ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ বলেছেন, জনগণ যদি কেন্দ্রে গিয়ে নির্বিঘ্নে ভোট দিতে না পারে তাহলে নির্বাচনের উপর ভোটের অধিকারের উপর মানুষের আস্থা উঠে যাবে, গণতন্ত্রের মৃত্যু হবে। তিনি বুধবার কবিরহাট ও কোম্পানীগঞ্জে নির্বাচনী জনসভা করতে না পারার অভিযোগ তুলে বিকেলে মানিকপুরের নিজ বাড়িতে সংবাদ সম্মেলনে এসব কথা বলেন।

মওদুদ আহমদ বলেন, আওয়ামী লীগের জন্য প্রমাণ কারার একটা সুযোগ ছিল যে, দলীয় সরকারের অধীনেও সুষ্ঠু নির্বাচন হয়। কিন্তু তারা ক্ষমতার লোভে, পেশী শক্তি পুলিশি শক্তি, বল প্রয়োগ, বোমাবাজি ও ভোটারদেরকে ভয়ভীতি দেখিয়ে কেন্দ্র দখল করে জয়লাভ করতে চায়।

তিনি আরও বলেন, গত ১৫ দিনে আমার নির্বাচনী এলাকা কোম্পানীগঞ্জ ও কবিরহাটে ৩১টি মামলা দিয়েছে আওয়ামী লীগ। এতে এজাহারভুক্ত ৯৬৫ জন ও অজ্ঞাত এক হাজার ৬৪৯ জন বিএনপি নেতাকর্মীকে আসামী করা হয়েছে। এছাড়া গত ১৫ দিনে এ এলাকায় আমার অন্তত ৭৬৬ জন নেতাকর্মীকে পিটিয়ে জখম করা হয়েছে। তার একটি তালিকাও সাংবাদিকদের দেখান মওদুদ।

মওদুদ আহমদ বলেন, আমার নির্বাচন করার মতো মূল নির্বাচন পরিচালনাকারী নেতাদের ৭৮ জনকে গ্রেফতার করে জেলে রেখেছে তারা। এরমধ্যে বিএনপি, যুবদল, ছাত্রদলের উপজেলা, পৌর, ইউনিয়ন ও ওয়ার্ড পর্যায়ের সভাপতি – সম্পাদকরা রয়েছেন। এছাড়া যারা আমার কেন্দ্রের এজেন্ট হতে পারে তাদের বাড়ি ঘরে তল্লাশি চালানো হচ্ছে। ভোটারদেরকে মাইকিং করে কেন্দ্রে যেতে নিষেধ করছেন বলে অভিযোগ তুলেছেন।

তিনি বলেন, এটা কোন নির্বাচন নয়, ত্রাসের রাজত্ব চলছে। সরকারি দলের দুর্বৃত্তায়ণে নির্বাচনের সামান্যতম পরিবেশ নাই। সাধারণ নেতাকর্মী তো দুরের কথা আমি প্রার্থীও কোথাও বের হতে পারছি না। কোন নিরাপত্তা নাই। এসব বিষয়ে রিটার্নিং অফিসার, বিজিবি ক্যাম্প ও পুলিশকে অভিযোগ করেও কোন সাড়া পাননি। এমনকি সেনাবাহিনীর ক্যাম্পে অভিযোগ করেও কোন প্রতিকার পাননি উল্লেখ করে প্রশ্ন করেন, তাহলে সেনাবাহিনী এসে লাভ কি?

মওদুদ আহমদ বলেন, এতো অত্যাচার নির্যাতনের পরও তিনি এক মূহুর্তের জন্যও নির্বাচন থেকে সরে যাবেন না। নির্বাচনের শেষ দিন, শেষ ঘন্টা, শেষ মিনিট পর্যন্ত তিনি লড়ে যাবেন এবং ভোটাররা কেন্দ্রে গিয়ে নিজের ভোট নিজে দিতে পারলে ধানের শীষ বিপুল ভোটে জয়লাভ করবে বলে তিনি আশা প্রকাশ করেন।

এসময় জেলা ছাত্রদলের সেক্রেটারি আবু হাসান মো. নোমান, বসুরহাট পৌর যুবদলের সভাপতি শওকত হোসেন সগির, বিএনপি নেতা মমিনুল হকসহ দলীয় নেতাকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।