Home ব্রেকিং স্বামীর পরামর্শেই ভোট দেন আদিবাসী নারী ভোটাররা

স্বামীর পরামর্শেই ভোট দেন আদিবাসী নারী ভোটাররা

SHARE

বিশ্ববিদ্যায়ল পরিক্রমা ডেস্ক : আর মাত্র একদিন পরেই একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন। ভোটাররা তাদের পছন্দের প্রার্থীকে ভোট দিবেন এটাই স্বাভাবিক। কিন্তু আদিবাসী নারী ভোটাররা তাদের ইচ্ছামতো পছন্দের প্রার্থীকে ভোট দিতে পারেন না! পরিবারের কর্তা কিংবা স্বামীর ওপরই নির্ভর করে তারা কাকে ভোট দিবেন।

এমন চিত্রই দেখা গেছে, সিরাজগঞ্জ-৩ আসনে (রায়গঞ্জ-তাড়াশ) আদিবাসী প্রান্তিক নারী ভোটারদের বেলায়।

তাড়শের মাধাইনগর গ্রামেরে ভোটার কুন্তি রানী মাহাতো বলেন, ভোটের দিনে ভোটকেন্দ্রে যাওয়ার আগেই কোন মার্কায় ভোট দিতে হবে তা তার স্বামী নির্মল মাহাতোই ঠিক করে দেন।

তিনি বলেন, বিয়ের আগে বাবার পরিবারে যখন ছিলাম তখন মা বাবার কথায় ভোট দিতেন।

বিয়ের পর তিনিও স্বামীর পরামর্শেই ভোট দিয়ে থাকেন বলে জানান।

ভোটের বিষয়ে কথা হয় তাড়াশ উপজেলার গুড়পিপুল গ্রামের আদিবাসী ভোটার নৃপেন শিং, বাসন্তী বালা, হরেন্দ্র ওঁড়াওসহ আরো কয়েকজনের সাথে।

তারা বলেন, ভোট পাওয়ার ক্ষেত্রে প্রার্থীরা আদিবাসী নারী ভোটারদের চেয়ে পুরুষদের প্রাধান্য বেশি দিয়ে থাকেন। কারণ প্রান্তিক এই নারী ভোটাররা এখনও ভোটদানের বিষয়ে স্বামী বা পরিবারের বড় কর্তার ইচ্ছার উপর নির্ভর করে থাকেন।

তাড়াশ উপজেলা আদিবাসী বহুমুখী সমিতির সভাপতি বীরেন্দ্র নাথ মাহাতো জানান, এই আসনে প্রায় ২০-২২ হাজার আদিবাসী সম্প্রদায়ের ভোটার রয়েছে। আদিবাসীদের মধ্যে শিক্ষার হার কম থাকায় পরিবারের পুরুষ প্রধানই স্ত্রী, কন্যার ভোটের বিষয়টি নির্ধারণ করে দেন।

সিরাজগঞ্জ-৩ আসনের দুটি উপজেলার মধ্যে রায়গঞ্জ উপজেলায় একটি পৌরসভাসহ ১০টি ইউনিয়নে মোট ভোটার সংখ্যা ২ লাখ ২৬ হাজার ৯৭ জন।

অপরদিকে তাড়াশ উপজেলার ৮টি ইউনিয়নে মোট ভোটার ১ লাখ ৪১ হাজার ৪৩৮ জন।