Home ব্রেকিং এজনগণের আস্থার প্রতিদান দেবে সরকার : শিল্পমন্ত্রী

এজনগণের আস্থার প্রতিদান দেবে সরকার : শিল্পমন্ত্রী


বিশ্ববিদ্যায়ল পরিক্রমা ডেস্ক :  শিল্পমন্ত্রী আমির হোসেন আমু বলেছেন, একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে সরকারের উন্নয়ন কর্মকাণ্ডের প্রতি জনগণের আস্থা প্রতিফলিত হয়েছে।

শিল্পমন্ত্রী আজ মঙ্গলবার শিল্প মন্ত্রণালয়ে কর্মকর্তা-কর্মচারীদের সাথে নববর্ষের শুভেচ্ছা বিনিময়কালে এ কথা বলেন।

তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বিগত দশ বছরে দেশে সামাজিক নিরাপত্তা, যোগাযোগ অবকাঠামো, শিল্পায়ন, গ্রামীণ জনপদের উন্নয়ন, স্বাস্থ্য, শিক্ষা, চিকিৎসাসহ সকলখাতে যে অভূতপূর্ব অগ্রগতি সাধিত হয়েছে, জনগণ ব্যালট যুদ্ধের মাধ্যমে এর প্রতি মূল্যবান রায় প্রদান করেছেন। উন্নয়নের চলমান ধারা অব্যাহত রেখে দেশের গ্রামাঞ্চলে ও শহরের সুবিধা পৌঁছে দেওয়া হবে বলে তিনি উল্লেখ করেন।

শিল্পমন্ত্রী বলেন, দশ বছরে আওয়ামী লীগ সরকার জনগণের কল্যাণে দেশব্যাপী ব্যাপক উন্নয়ন কর্মসূচি বাস্তবায়ন করেছে। এর ফলে সমাজের সুবিধাবঞ্চিত থেকে শুরু করে সকল শ্রেণি ও পেশার মানুষ উপকৃত হয়েছে। এতে করে বাংলাদেশ দ্রুত উন্নয়নের মহাসড়কে এগিয়ে যাচ্ছে।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশ ২০৪১ সালের অনেক আগেই উন্নত ও সমৃদ্ধ দেশে পরিণত হবে বলে আশা প্রকাশ করে তিনি বলেন, গণরায়ের প্রতি শ্রদ্ধা রেখে আওয়ামী লীগ সরকার জনগণের আস্থার প্রতিদান দিতে সচেষ্ট থাকবে। অনুষ্ঠানে ভারপ্রাপ্ত শিল্পসচিব মো. আবদুল হালিম শিল্পমন্ত্রীর নেতৃত্বে দেশের শিল্পখাতের উন্নয়নের প্রশংসা করেন।

তিনি বলেন, তার যোগ্য নেতৃত্বে বাংলাদেশের শিল্পখাতে ইতোমধ্যে ব্যাপক অগ্রগতি অর্জিত হয়েছে। এ ধারা অব্যাহত রেখে ২০২১ সালের মধ্যেই বাংলাদেশ শিল্পসমৃদ্ধ মধ্যম আয়ের এবং ২০৪১ সালের আগেই উন্নত দেশে পরিণত হবে। তিনি বর্তমান সরকারের উন্নয়ন কর্মসূচি বাস্তবায়নে প্রজাতন্ত্রের কর্মকর্তা-কর্মচারীরা সর্বোচ্চ আন্তরিকতা ও নিষ্ঠার সাথে কাজ করার প্রত্যয় ব্যক্ত করেন।

এর আগে একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে বিপুল ভোটে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হওয়ায় ভারপ্রাপ্ত শিল্পসচিবের নেতৃত্বে মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তারা শিল্পমন্ত্রীকে ফুল দিয়ে অভিনন্দন জানান। পরে মন্ত্রণালয়ের আওতাধীন বিভিন্ন দপ্তর ও সংস্থার পক্ষ থেকেও তাকে ফুলেল শুভেচ্ছা জানানো হয়।

এ সময় ভারপ্রাপ্ত শিল্পসচিব মো. আবদুল হালিমসহ শিল্প মন্ত্রণালয়ের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা এবং মন্ত্রণালয়ের বিভিন্ন দপ্তর ও সংস্থার প্রধানরা উপস্থিত ছিলেন।