Home খেলাধূলা খুলনার বিপক্ষে আসরের সর্বোচ্চ রান তুললো চিটাগং

খুলনার বিপক্ষে আসরের সর্বোচ্চ রান তুললো চিটাগং

SHARE

বিশ্ববিদ্যায়ল পরিক্রমা ডেস্ক : মুশফিকুর রহিম, ইয়াসির আলী, দাসুন শানাকা এবং মোহাম্ম শেহজাদের ব্যাটিং ঝড়ে ২১৪ রানের পাহাড় গড়েছে চিটাগাং ভাইকিংস। জোড়া ফিফটি তুলে নিয়েছেন মুশফিক (৫২) ও ইয়াসির আলী।

১৭ বলে ৪২ রান করে অপরাজিত থাকেন শানাকা। ১৭ বলে ৩৩ রান করেন শেহজাদ। তাদের দুর্দান্ত ব্যাটিংয়ে বিপিএলের চলমান ষষ্ঠ আসরে সর্বোচ্চ রানের রেকর্ড গড়ে চিটাগাং।

২১৫ রানের জয়ের টার্গেটে ব্যাট করছে মাহমুদউল্লাহ রিয়াদের নেতৃত্বাধীন খুলনা টাইটানস।

শনিবার সিলেট আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়ামে বিপিএলের ২২তম ম্যাচে টস জিতে চিটাগাং ভাইকিংসকে প্রথমে ব্যাটিংয়ের আমন্ত্রণ জানান খুলনা টাইটানসের অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ।

এদিন টস হেরে ব্যাটিংয়ে নেমে ইনিংসের প্রথম তিন ওভারে মাত্র ১৩ রান করে চিটাগাং ভাইকিংস। এরপর খোলস থেকে বেরিয়ে আক্রমণাত্মক ক্রিকেট খেলতে গিয়ে উইকেট হারান চিটাগাংয়ের দক্ষিণ আফ্রিকান ওপেনার ক্যামেরন ডেলপোর্ট। দলীয় ১৭ রানে শরিফুল ইসলামের বলে ক্যাচ তুলে সাজঘরে ফেরেন তিনি।

তিন নম্বর পজিশনে ব্যাটিংয়ে নামা ইয়াসির আলীকে সঙ্গে নিয়ে ব্যাটিং তাণ্ডব চালান চিটাগাংয়ের আফগানিস্তানের ওপেনার মোহাম্মদ শেহজাদ। প্রথম ৯ বলে তিন রান করা এই ওপেনার, চতুর্থ ওভারে শরিফুলের বলে দুটি চার ও একটি ছক্কা হাঁকান।

এরপর পঞ্চম ওভারে এক বল খেলার সুযোগ পেয়ে বাউন্ডারি হাঁকান শুভাশীষ রায়কে। ঠিক পরের ওভারে তাইজুল ইসলামকে পরপর দুই ছক্কা হাঁকান শেহজাদ। ঠিক পরের বলে উইকেটকিপার ব্রান্ডন টেইলরের হাতে ক্যাচ তুলে দিয়ে ফেরেন চিটাগাংয়ের এই ওপেনার। সাজঘরে ফেরার আগে ১৭ বলে তিন চার ও সমান ছক্কায় ৩৩ রান করেন শেহজাদ।

চার নম্বর পজিশনে ব্যাটিংয়ে নেমে ইয়াসির আলীকে সঙ্গে নিয়ে তৃতীয় উইকেট জুটিতে ৮৩ রানের জুটি গড়েন মুশফিকুর রহিম।

৩৬ বলে পাঁচ চার ও তিন ছক্কায় ৫৪ রান করে ডেভিড ওয়াইজের বলে ক্যাচ তুলে ফেরেন ইয়াসির। এর আগে দুই ম্যাচ খেলে ৪১ ও ৪ রান করেন চিটাগাংয়ের এই স্থানীয় ক্রিকেটার।

তার বিদায়ের পর দুর্দান্ত খেলতে থাকা মুশফিকু রহিম ২৯ বলে ফিফটি তুলে নেয়ার পর উইকেট হারান। ডেভিড ওয়াইজের দ্বিতীয় শিকারে পরিণত হওয়ার আগে ৩৩ বলে আট চার ও এক ছক্কায় ৫২ রান করেন মুশফিকুর রহিম। এর আগের ম্যাচে কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্সের বিপক্ষে ম্যাচ জয়ী ৭৫ রানের ইনিংস খেলেন মুশফিকুর রহিম।

ইনিংসের শেষ দিকে ব্যাটিং তাণ্ড চালিয়ে দলকে চ্যালেঞ্জিং স্কোর উপহার দেন দাসুন শানাকা। মাত্র ১৭ বলে তিন চার ও চার ছক্কায় ৪২ রান করে অপরাজিত থাকনে চিটাগাংয়ের এই শ্রীলংকান। ৫ বলে ১৬ রান করেন নজিবুল্লাহ জাদরান।