Home ব্রেকিং ঐক্যফ্রন্টের ‘কালো ব্যাজ’ ধারণ বিকালে

ঐক্যফ্রন্টের ‘কালো ব্যাজ’ ধারণ বিকালে

SHARE

বিশ্ববিদ্যায়ল পরিক্রমা প্রতিবেদক : একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ‘ভোট ডাকাতির’ প্রতিবাদে বুধবার (৬ ফেব্রুয়ারি) এক ঘণ্টার কালো ব্যাজ ধারণ কর্মসূচি পালন করবে জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট।

জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে বিকাল ৩টায় কর্মসূচি শুরু হয়ে শেষ হবে বিকাল ৪টায়।

রাজধানীর জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে এ কর্মসূচিতে দলমত নির্বিশেষে সবাইকে অংশগ্রহণের আহ্বান জানিয়েছেন ফ্রন্ট নেতারা।

পুরানা পল্টনে ঐক্যফ্রন্টের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে এ আহ্বান জানান ঐক্যফ্রন্টের ঢাকা মহানগর সমন্বয় কমিটির আহ্বায়ক বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা আবদুস সালাম। এর আগে ঐক্যফ্রন্টের কেন্দ্রীয় ও ঢাকা মহানগর সমন্বয় কমিটির এক যৌথসভায় সভাপতিত্ব করেন তিনি।

আবদুস সালাম বলেন, ভোট ডাকাতির প্রতিবাদে ৬ ফেব্রুয়ারি বুধবার জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে বিকাল ৩টা থেকে ৪টা পর্যন্ত কালো ব্যাজ ধারণ করে মানববন্ধন করা হবে। আর ২৪ ফেব্রুয়ারি অনুষ্ঠিত হবে গণশুনানি।

গণশুনানি কর্মসূচি কিভাবে কোথায় হবে সেটা পরবর্তীতে জানিয়ে দেয়া হবে। এ সময় তিনি একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে অনিয়ম হয়েছে অভিযোগ করে অনতিবিলম্বে পুনরায় নির্বাচন দাবি করেন।

নির্বাচিতদের শপথ নেয়াসহ বিভিন্নভাবে প্রলুব্ধ করে বিভেদ সৃষ্টির চেষ্টা করছে সরকার- এমন অভিযোগ করে তিনি বলেন, ঐক্যফ্রন্টের মধ্যে কোনো বিভেদ নেই। ঐক্যফ্রন্ট ঐক্যবদ্ধ আছে।

এক প্রশ্নের জবাবে আবদুস সালাম বলেন, আওয়ামী লীগের অধীনে কোনোভাবেই নিরপেক্ষ নির্বাচন হওয়া সম্ভব নয়। সেটা ৩০ ডিসেম্বর প্রমাণ হয়েছে। তার প্রতিবাদেই এ কর্মসূচি। কর্মসূচিতে জাতীয় নেতারা আসবেন। দেশবাসীর কাছেও সহযোগিতা চাই।

ঐক্যফ্রন্টের প্রার্থীরা নির্বাচনী ট্রাইব্যুনালে মামলা করেছেন কিনা জানতে চাইলে আবদুস সালাম বলেন, প্রার্থীদের বলা হয়েছিল নিজের মামলা নিজেই করতে। তারা মামলা করেছেন কিনা তা সঠিক বলতে পারব না। তবে এখনও ১১ দিন বাকি আছে।

সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন গণফোরামের জগলুল হায়দার আফ্রিক, মোশতাক আহমেদ, রফিকুল ইসলাম পথিক, বিকল্পধারার অ্যাডভোকেট শাহ আহমেদ বাদল, গণদলের এটিএম গোলাম মাওলা চৌধুরী, বিএনপির নবী উল্লাহ নবী, কাজী আবুল বাশার, নাগরিক ঐক্যের মমিনুল ইসলাম, ঐক্য প্রক্রিয়ার নূরুল হুদা চৌধুরী মিলু, জিএসডির মোশাররফ হোসেন, ঐক্যফ্রন্টের দফতর সম্পাদক জাহাঙ্গীর আলম মিন্টু প্রমুখ।