Home খেলাধূলা যে কারণে বাড়েনি আশরাফুলের পারিশ্রমিক

যে কারণে বাড়েনি আশরাফুলের পারিশ্রমিক

SHARE

বিশ্ববিদ্যায়ল পরিক্রমা ডেস্ক : ঢাকা প্রিমিয়ার লিগের গেল আসরে কলাবাগান ক্রীড়া চক্রের হয়ে খেলেছিলেন মোহাম্মদ আশরাফুল। স্পট ফিক্সিং কেলেঙ্কারিতে জড়িয়ে ৫ বছরের নিষেধাজ্ঞা কাটানোর পর সেবার প্রথম মাঠে নামেন তিনি। মাঠে ফিরেই ৫টি সেঞ্চুরি করেন বাংলাদেশের সাবেক এই অধিনায়ক।

সোমবার প্লেয়ার্স ড্রাফটের ‘বি’ ক্যাটাগরিতে থাকা আশরাফুলকে কিনে নিয়েছে মোহামেডান স্পোর্টিং ক্লাব। মজার বিষয় হচ্ছে গেল আসরে ৫টি সেঞ্চুরি করার পরও পারিশ্রমিক বাড়েনি তার। গেল আসরে তার পারিশ্রমিক ছিল ১৫ লাখ টাকা। চলতি আসরেও একই পারিশ্রমিকে তাকে দলে ভিড়িয়েছে মোহামেডান।

আগের বারের পারফরম্যান্সের ভিত্তিতে অন্য ক্রিকেটারদের পারিশ্রমিক বাড়লেও বাড়েনি আশরাফুলের। অথচ তার ঝুলিতে রয়েছে পাঁচ পাঁচটি সেঞ্চুরি। তাহলে কেন বাড়েনি অভিজ্ঞ এই ব্যাটসম্যানের পারিশ্রমিক? তার ব্যাখ্যা দিয়েছেন সিসিডিএম চেয়ারম্যান কাজি ইনাম।

এই প্রসঙ্গে সিসিডিএম প্রধান জানালেন, কেবল রান করাই নয়, দেখা হয়েছে দলের জয়ে অবদানও। কলাবাগানের হয়ে পাঁচটি সেঞ্চুরি করলেও ওই সেঞ্চুরিগুলোর চারটিতেই হেরেছিল তার দল। রান করলেও তাই প্রিমিয়ার লিগ থেকে দলকে রেলিগেশন হওয়া বাঁচাতে পারেননি তিনি। কলাবাগান সবার নিচে থেকে নেমে গেছে প্রথম বিভাগে।

আশরাফুলের পারিশ্রমিক কেন বাড়েনি, এমন প্রশ্নের জবাবে সোমবার ইনাম বলেছেন, ‘এটা (পারিশ্রমিক) নির্বাচকেরা দেখেছেন, তারাই নির্ধারণ করেছেন। ক্রিকেটারদের সার্বিক পারফরম্যান্সের পাশাপাশি আরও কয়েকটি দিক তারা দেখেছেন। কোনো ক্রিকেটার পারফর্ম করলে সেগুলো ম্যাচ জেতানো পারফরম্যান্স কিনা, সেসব তারা বিবেচনা করেছেন।’

গেল আসারে পাঁচ সেঞ্চুরির চারটিই আশরাফুল করেন বেশ মন্থর গতিতে। ১৩৭ বলে অপরাজিত ১০২, ১৩৭ বলে ১০৩, ১৩১ বলে ১০৪। এরকম রান করা তিন ম্যাচেই হারে তার দল। তার আরেকটি মন্থর সেঞ্চুরিতে (১৩৬ বলে ১০২) দল জিতেছিল। কিন্তু ওই ম্যাচে সতীর্থ তাসামুল হক খেলেছিলেন ১১৫ বলে ১০৬ রানের ইনিংস। সে ম্যাচে সেরাও হয়েছিলেন তাসামুলই।