Home জাতীয় কৃষি উন্নয়নে গবষেণা অপরহর্িায –কৃষমিন্ত্রী

কৃষি উন্নয়নে গবষেণা অপরহর্িায –কৃষমিন্ত্রী

SHARE
????????????????????????????????????

দশেরে মানুষরে খাদ্য ও পুষ্টি নরিাপত্তা প্রদানরে প্রধানতম এবং অন্যতম উৎস হচ্ছে কৃষ।ি সরকার কৃষি উন্নয়নে
যুগোপযোগি নীতমিালা প্রণয়ন হালনাগাত করছে।েফলে উৎপাদনশীলতা বৃদ্ধি পয়েছে।ে আমাদরে কৃষরি টকেসই উন্নয়নরে জন্য
কৃষি রুপান্তর,কৃষি বহুমুখীকরণরে,বাজারজাতকরণ এবং ভ্যালু অ্যাড ও ভ্যালু চইেন অপরহর্িায। বাংলাদশেরে কৃষি এখন
বাণজ্যিকি কৃষ;িখোড় পোষরে কৃষি নয়।এমতবস্থায় জবৈপ্রযুক্তি ব্যবহাররে মাধ্যমে বচৈত্রির্পূণ খাদ্যরে উৎপাদন জরুরী
।হালনাগাদ কৃষি নীতটিতিে বায়োটকেনোলজতিে গবষেণা ও উন্নয়নয়নকে অগ্রাধকিার দযে় হয়ছে।ে পাশাপাশি কৃষতিে নারীর
ক্ষমতায়নরেও গুরুত্ব দয়িছেে ।
আজ (বুধবার) কৃষমিন্ত্রী ড.মো: আব্দুর রাজ্জাক এমপি রাজধানীর একটি হোটলেে আর্ন্তজাতকি খাদ্য নীতি গবষেণা
ইনস্টটিউিট (আইএফপআিরআই) আয়োজতি ‘অমৎরপঁষঃঁৎধষ ঞৎধহংভড়ৎসধঃরড়হ রহ ইধহমষধফবংয: ঊারফবহপব ড়হ ইরড়ঃবপযহড়ষড়মু ধহফ
ঘঁঃৎরঃরড়হ-ঝবহংরঃরাব অমৎরপঁষঃঁৎব’ র্শীষক চড়ষরপু ডড়ৎশংযড়ঢ় এসব কথা বলনে।
কৃষি আজ শুধু কৃষকরে একার চন্তিার বষিয় নয়। কৃষরি প্রশ্নে সরকারি বভিন্নি প্রতষ্ঠিানে বজ্ঞিানী ও সম্প্রসারক
যমেন কাজ করছনে, তমেনি সক্রয়ি অবদান রাখছে বসেরকারি খাতও। বজ্ঞিান ও গবষেণা দ্রুত এগয়িে যাচ্ছ।ে তার সঙ্গে পাল্লা
দয়িে এগয়িে যাচ্ছে বাণজ্যি ও র্অথনতৈকি চন্তিা। বহুমাত্রকি চ্যালঞ্জে মোকাবলো করে আমাদরে খাদ্য ও পুষ্টি নরিাপত্তা
নশ্চিতি করতে হব।েআর এজন্য কৃষি গবষেনার কোনো বকিল্প নইে বলনে কৃষমিন্ত্রী।
কৃষমিন্ত্রী আরও বলনে;আধুনকি জবৈ প্রযুক্তি ব্যবহাররে মাধ্যমে নরিাপদ ও পুষ্টকির খাদ্য প্রাপ্যতা নশ্চিতি
করতে সরকার জএিমওসহ কৃষি রুপান্তর,হাইব্রডি জাত নয়িে এসছে।ে আমাদরে কৃষি উৎপাদন বৃদ্ধি পয়েছেে কন্তিু আমাদরে
কৃষকবৃন্দ উৎপাদতি পণ্যরে সঠকি মূল্য পাচ্ছে না ।এর ফলে কৃষক র্অথতি সক্ষমতা র্অজনে র্ব্যথ হচ্ছে কৃষকিাজে
নরিুৎসাহতি হচ্ছ।ে অন্যদকিে পুষ্টকির খাদ্য বাজারে থকেে ক্রয়রে সার্মথ নইে,এ জন্য কৃষজি পন্যরে বাজারজাত অপরহর্িায।
অনকে ফসল রযছেে যমেন আমাদরে চাহদিার চয়েে ৩০ লাখ টন আলু বশেী উৎপন্ন হয় যার মাত্র ১ লাখ টন রপ্তানি করা
যাচ্ছ।ে বাকি উদ্বৃত্তাংশ উৎপাদন খরচ উঠাতে পাড়ছনো কৃষক। মাথাপছুি আয় বৃদ্ধতিে কৃষরি বপ্লিবরে কোনো বকিল্প নইে।
তনিি আরও বলনে;আমাদরে দশেে উদ্ভাবতি বটিি বগেুন কৃষক ভোক্তা সবাই গ্রহণ করছেে উৎপাদন ভালো এবং বশে
লাভজনক। কছিু ব্যক্তি ও প্রতষ্ঠিান আমাদরে কৃষি বজ্ঞিানীদরে উদ্ভাবতি নতুন নতুন জাত নয়িে বরিোধীতা করছ।েতারা
কোনো তথ্য প্রমান ছাড়া কথা বলছ।ে এসব ফসলে কোন ক্ষতকির কছিু নইে। আমাদরে কৃষকরা এসব উন্নত জাতরে স্বত্ব
হারাবে যে কথা বলা হচ্ছে তাও ঠকি নয়।এমর্বধমান জনসংখ্যা খাদ্য চাহদিা মটিানো ও ভবষিৎ খাদ্য ঘাটতি মোকাবলোয় নতুন
নতুন উন্নত জাত উদ্ভবান করতে হব।ে নতুন জাত যনে পরবিশে ও মানবদহেরে জন্য ক্ষতকির না হয় সইে দকিে সর্বোচ্চ গুরুত্ব
দয়ো হচ্ছ।েআমরা আরও ভালো ভালো টকেনোলজি সম্পৃক্ত করবো,সমালোচনা থাকবে এরই মধ্যে কাজ করে যতেে হবে উন্নত ও
সমৃদ্ধশালী বাংলাদশেরে পথ।ে
অনুষ্ঠান শষেে সাংবাদকিদরে প্রশ্নরে জবাবে কৃষমিন্ত্রী বলনে,খাদ্যে ভজোল রোধে আমাদরে আরও কঠোর হওয়া
উচতি ছলি। খাদ্য ভজোল রোধে আর কোন ছাড় দয়ো হবে ন্।া ভজোল রোধে ঢাকায় কন্দ্রেীয় ভাবে একটি ল্যাব ও বভিাগীয়
শহররে একটি করে ল্যাব স্থাপন করা হবে যাতে করে দ্রুততার সাথে ভজোর সনাক্ত করা যায়।
অতরিক্তি সচবি জনাব ড.মো:আব্দুর রৌফ এর সভাপতত্বিে অনুষ্ঠানে বশিষে অতথিি হসিবেে উপস্থতি ছলিনে কৃষি
সচবি জনাব মো. নাসরিুজ্জামান;বাংলাদশে কৃষি গবষেণা ইনস্টটিউিট ( বারি ) এর মহাপরচিালক জনাব ড. মোঃ আবুল কালাম
আযাদ আরও উপস্থতি ছলিনে মীর নুরুল ইসলাম, কৃষি সম্প্রসারণ অধদিফতররে মহাপরচিালক ডএিই); মসিসে জনিাহ সালাহী,
ভারপ্রাপ্ত মশিন ডরিক্টের, ইউএসএআইড;িএবং আখতার আহমদে, আইএফপআিরআইয়রে কান্ট্রি রপ্রিজেনেটটিভি ।