Home ব্রেকিং সরকার গণতন্ত্র নির্বাসনে পাঠিয়ে হরণতন্ত্র চালু করেছে: রিজভী

সরকার গণতন্ত্র নির্বাসনে পাঠিয়ে হরণতন্ত্র চালু করেছে: রিজভী

2
0
SHARE

বিশ্ববিদ্যালয় পরিক্রমা ডেস্ক : সরকার ‘গণতন্ত্র নির্বাসনে’ পাঠিয়ে দেশে ‘হরণতন্ত্র’ চালু করেছে বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী।

বৃহস্পতিবার (৪ এপ্রিল) সকালে রাজধানীর নয়াপল্টনে দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে এক সমাবেশে তিনি এই মন্তব্য করেন।

প্রধানমন্ত্রীকে উদ্দেশ্য করে রিজভী বলেন, আপনি এক এক করে গণতন্ত্র হরণ করেছেন, নির্বাচন ব্যবস্থাকে ধবংস করেছেন, সংবাদপত্রের স্বাধীনতা হরণ করেছেন, মানুষের মৌলিক অধিকার-ভোটের অধিকার হরণ করেছেন। আপনি গণতন্ত্র ধ্বংস করে হরণতন্ত্র চালু করেছেন।তাও কি টিকতে পারবেন? এভাবে কি টিকে থাকা যায়?

বিএনপির এই জ্যেষ্ঠ নেতা বলেন, প্রধানমন্ত্রী গণজোয়ারের ঢেউ আপনি হয়ত টের পাচ্ছেন না। হাজারো জুলুম-নির্যাতনের যাতাকল ভেঙে যে গণজোয়ার সৃষ্টি হচ্ছে, সেই গণজোয়ার আপনি কোনোভাবেই ঠেকাতে পারবেন না।গণজোয়ারের স্রোতে ভেসে যাবেন।

দীর্ঘদিন কারাবন্দি থেকে অসুস্থ হয়ে পড়া খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবি জানান রিজভী। প্রধানমন্ত্রীর উদ্দেশে বলেন, খালেদা জিয়াকে বন্দি করে রেখেছেন। তাতে আপনার সাময়িক লাভ। কিন্তু আপনার মনে কী শান্তি আছে? অবৈধভাবে, অন্যায়ভাবে ক্ষমতায় থাকলে মনে কখনই শান্তি থাকে না। পতনের শঙ্কায় আপনার দুঃশ্চিন্তা সব সময় থাকবে।

খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতে জাতীয়তাবাদী মহিলা দল এই বিভোক্ষ সমাবেশ ও মিছিলের কর্মসূচি দেয়।

সমাবেশে মহিলা দলের সভানেত্রী আফরোজা আব্বাস বলেন, যতক্ষণ পর্যন্ত আমরা আমাদের মা, গণতন্ত্রের মা দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়াকে মুক্ত করতে না পারব, ততক্ষণ পর্যন্ত আমাদের সংগ্রাম চলবে।

মহিলা দলের সাধারণ সম্পাদক সুলতানা আহমেদের পরিচালনায় সমাবেশে মহিলা দলের সিনিয়র যুগ্ম সম্পাদক হেলেন জেরিন খান, পেয়ারা মোস্তফা, শামসুন্নাহার ভুঁইয়া, সাবিনা ইয়াসমীন, মাসুদা খানম লতা, নিলুফার ইয়াসমীন নিলু, সেলিনা হাফিজ, মর্জিনা আফসারী প্রমুখ বক্তব্য দেন।

বিক্ষোভ সমাবেশ শেষে কার্যালয়ের সামনে থেকে কাকরাইলের নাইটিঙ্গেল মোড় পর্যন্ত মিছিল করে মহিলা দল।

image_pdfimage_print