Home খেলাধূলা টাইগারদের জার্সি নিয়ে বিতর্ক, পাকিস্তানের সাথে মিল দেখে ভক্তদের ক্ষোভ

টাইগারদের জার্সি নিয়ে বিতর্ক, পাকিস্তানের সাথে মিল দেখে ভক্তদের ক্ষোভ

SHARE

বিশ্ববিদ্যালয় পরিক্রমা ডেস্ক : বিশ্বকাপের জন্য বাংলাদেশ জাতীয় ক্রিকেট দলের জার্সি উন্মোচন করা হয়েছে সোমবার (২৯ এপ্রিল) । বোর্ড সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন অধিনায়ক মাশরাফি বিন মর্তুজার হাতে জার্সি তুলে দিয়েছেন।কিন্তু এই জার্সি নিয়ে হতাশা প্রকাশ করেছেন টাইগার সমর্থকদের বড় একটা অংশ। সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যমেও শুরু হয়েছে তীব্র সমালোচনা।

বিশ্বকাপে বাংলাদেশের জার্সির রং গাঢ় এবং হালকা সবুজ। পুরো জার্সিতে কোথাও লাল রং নেই। আর এতেই ক্ষেপেছেন সমর্থকরা। ফেসবুকে অনেকে অনেক রকম মন্তব্য করছেন।

কেউ কেউ বলছেন, এই জার্সির সঙ্গে আয়ারল্যান্ড ও পাকিস্তানের জার্সির মিল আছে।

মুহা. সাব্বির আহমেদ নামের একজন লিখেছেন, একেবারে বাজে জার্সি, যেখানে সবুজের বুকে লাল থাকার কথা, সেখানে শুধুই সবুজ।এটা কখনো বাঙালির জার্সি হতে পারে না।’

এ জার্সির ডিজাইনার কে, আর অনুমোদনই বা করলো কে ? সবুজ জমিনে লাল বাদ কেন?? পাকিস্তানি জার্সির আদলে আমাদের জার্সি কেন,এভাবে বাংলাদেশের ক্রিকেট দলের জার্সি নিয়ে ক্ষোভের কথা জানান এক ভক্ত ওবাইদুল ইসলাম।

জার্সি নিয়ে ক্রিকেটাররা খুব বেশি কিছুই বলেননি।

তবে অনানুষ্ঠানিকভাবে অনেকে অসন্তুষ্টি প্রকাশ করেছেন।

প্রকাশ্যেই অসন্তুষ্টির কথা প্রকাশ করেছেন ভক্তরা।

মাহমুদুল হাসান নামের এক ভক্ত এই জার্সিকে ১০ এ ২ রেটিং দিয়েছেন।

বিবিসি বাংলার ফেসবুক পাতায় জার্সি পরিহিত অবস্থায় ক্রিকেটার সাইফুদ্দিনের ছবি দিয়ে মন্তব্য চাওয়া হলে অনেকেই “বেস্ট অফ লাক পাকিস্তান” লিখেছেন সেখানে।

এর মানে অনেকেই পাকিস্তানের জার্সির সাথে এই জার্সির মিল খুঁজে পেয়ে হতাশ হয়েছেন।

জার্সির যেসব বিষয় ভক্তদের ভালো লাগেনি

•সবুজের আধিক্য, অনেকেই বলছেন লাল রঙ নেই কেনো, বিসিবি অ্যাওয়ে জার্সি পুরোটা লাল রঙের করেছে।

•জার্সি পাকিস্তানের মতো বলেছেন অনেকে।

•অনেকেই বলেছেন আয়ারল্যান্ডের মতো।

•লাল রঙের জার্সিটিকে অনেকে বলছেন জিম্বাবুয়ের মতো।

•জার্সিটি অনেকের চোখে সাদামাটা হয়েছে।একজন ভক্ত সেফাত মির্জা বিন্তি বলেন জার্সিতে বাঘের কোনো প্রতিকৃতি না দেখে হতাশ তিনি।

“আমাদের পতাকার থিম রেড আর গ্রিন, ওখানে লাল রঙের কিছুই দেখিনি, ক্রিকেট দলকে বাঘের সাথে তুলনা করা হয় কিন্তু আমার দেখেই খেয়াল করলাম লাল রঙ নেই।

সৈয়দা মৌ জান্নাত, বিবিসি বাংলাকে বলেন, জাসির্টি দেখে তিনি ভেবেছিলেন এটা পাকিস্তানের জার্সি।

আমার দেখেই মনে হয়েছে এটা পাকিস্তানের জার্সি, আবার দেখলাম একই কথা মনে হয়েছে এবং আমার মন খারাপ হয়েছে, পুরোই সবুজটা বেশি চোখে লেগেছে।

হিমু আহমেদ যিনি একজন সাংবাদিক তিনি অবশ্য বলেন ছবির চেয়ে সামনাসামনি দেখতে জার্সিটা সুন্দর।

আমাদের দেশে সমালোচনা একটা কমন বিষয় হয়ে দাঁড়িয়েছে, তবে ছবিতে দেখে আমিও অখুশি হয়েছিলাম, সামনাসামনি দেখি জার্সিটা তত খারাপ না ।

তবে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন বলেন, তিনি আজই জার্সিটি দেখেছেন তাই ভালো বা খারাপ কিছুই লাগেনি তার কাছে।

সমর্থকদের অভিযোগ নিয়ে জানতে চাইলে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি) মিডিয়া কমিটির চেয়ারম্যান জালাল ইউনুস বলেন, আসলে আমাদের লাল আর সবুজ দুইটার কনসেপ্টই ছিল। জার্সিতে দুই রংই থাকতে হবে এমন তো কথা নেই। আর পুরো সবুজ তো হয়নি। তাছাড়া দক্ষিণ আফ্রিকাও এই কালারের জার্সি পড়ে খেলে।

তবে এটা ঠিক যে সবুজের মাঝখানে লাল বর্ডার থাকলে ভালো হতো। আমাদের ওই রকমই লাল কালারেরও জার্সি আছে ওটা পড়েও বাংলাদেশ খেলবে। একসাথে দুইটা রং না থাকলেও আলাদা ভাবে রয়েছে বলেও জানান তিনি ।