Home ব্রেকিং সমঝোতার পথে এগুচ্ছে বিএনপি!

সমঝোতার পথে এগুচ্ছে বিএনপি!

SHARE

বিশ্ববিদ্যালয় পরিক্রমা ডেস্ক : সরকারের সঙ্গে বিএনপির সমঝোতা নিয়ে রাজনৈতিক মহলে চলছে নানা আলোচনা। দৃশ্যত: বিএনপির কর্মকাণ্ড, কথাবার্তা ও সরকারের নমনীয় ভূমিকায় তেমনই আভাস পাওয়া যাচ্ছে। দলের ৫ সংসদ সদস্যের শপথ গ্রহণ, পুলিশের বাঁধাহীন মিছিল-মানববন্ধন-সভা-সমাবেশ এবং একাধিক নেতার কারামুক্তির প্রেক্ষাপটে রাজনৈতিক পর্যবেক্ষকরা বলছেন, পর্দার অন্তরালে সমঝোতা হয়ে থাকতে পারে। যা স্বীকার করছে না বিএনপি বা সরকার পক্ষ। এটা এক ধরনের রাজনীতির কৌশল তাদের।

ডিসেম্বরের নির্বাচন নিয়ে ব্যাপক সমালোচনার পর ক্ষমতাসীনরা হয়তো চাচ্ছে নির্বিঘ্নে সরকার পরিচালনা করতে, আর বিএনপি চাচ্ছে বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তি এবং সীমিত রাজনৈতিক কর্মকাণ্ড পরিচালনা করতে। বিএনপি নেতাদের নামে মামলা-হুলিয়া-জেল-জুলুমের নিষ্কৃতি চান তারা।

এদিকে লন্ডনে আওয়ামী লীগ নেতাদের জমায়েতে সেখানকার বিএনপির নেতা-কর্মীরা তারেক রহমানের নির্দেশে বিক্ষোভ প্রদর্শন করেনি। প্রধানমন্ত্রী যেখানে আছেন সেখানে পূর্ব ঘোষিত লন্ডন বিএনপির সকল বিক্ষোভ কর্মসূচি স্থগিত করা হয়েছে। বিএনপির একটি সূত্র জানায়, দুইজন নেতাকে সরকারের সঙ্গে সমঝোতা তৈরির জন্য দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে। এই সমঝোতার পর সরকার বিএনপির প্রতি নমনীয়তা প্রদর্শন করছে বলে রাজনৈতিক ওয়াকেফহাল মহল মনে করছেন। বিশেষ করে গত তিন দিনে দলের গুরুত্বপূর্ণ দুই নেতা জেল থেকে মুক্তি পেয়েছেন। আরো কয়েকজন দ্রুত মুক্তি পাবেন বলে জানা গেছে। কোর্টে গেলে এখন অনায়াসে জামিন মিলছে নেতাদের।

বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর দলের চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তিতে সরকারের সঙ্গে দরকষাকষি বা সমঝোতার কথা নাকচ করে দিয়ে বলেছেন, বিএনপি সমঝোতা করলে অনেক আগেই করতে পারতো। খালেদা জিয়া যদি সমঝোতা করতেন তাহলে উনিই প্রধানমন্ত্রী থাকতেন, অন্য কেউ প্রধানমন্ত্রী হতে পারতো না। খালেদা জিয়া নীতির প্রশ্নে কখনো আপস করেননি। বেগম জিয়ার সেই নীতিকে সামনে রেখেই এগিয়ে চলছে বিএনপি।