Home আন্তর্জাতিক এবার পশ্চিমবঙ্গে এনআরসি!

এবার পশ্চিমবঙ্গে এনআরসি!

SHARE

বিশ্ববিদ্যালয় পরিক্রমা ডেস্ক :  অনুপ্রবেশকারীদের চিহ্নিত করতে আসামের মতো ভারতের অন্য রাজ্যেও জাতীয় নাগরিকপঞ্জি (এনআরসি) তৈরি করা হবে বলে সোমবার রাজ্যসভায় জানিয়ে দিলেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ। জম্মু-কাশ্মীর সংশোধনী বিলের জবাবি বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন। এর ফলে বাংলাদেশ লাগোয়া মমতা ব্যানার্জির পশ্চিমবঙ্গে অল্প সময়ের মধ্যেই এনআরসি শুরু হবে বলে অনেকে ধারণা করছেন।

বিলটির বিতর্কে প্রথম এনআরসি প্রসঙ্গ তোলেন তৃণমূলের ডেরেক ও’ব্রায়েন। তিনি বলেন, ‘‘বিলটি পাশ হলে জম্মুর ৩ লাখ হিন্দু বাসিন্দা উপকৃত হবেন। তৃণমূল সেই সিদ্ধান্তকে স্বাগত জানাচ্ছে। কিন্তু আসামে এনআরসি-র ফলে যে ১৭ লাখ বাঙালি হিন্দু নাগরিককে অনুপ্রবেশকারী বানিয়ে দেয়া হলো, তাদের কথা কেন ভাবছে না সরকার?’’ জবাবি বক্তব্যে এ নিযে মুখ খোলেন অমিত শাহ। তিনি বলেন, ‘‘নাগরিকত্ব আইন পাশ করিয়ে আসামে সমস্ত হিন্দু অনুপ্রবেশকারীকে শরণার্থীর তকমা দিয়ে নাগরিকের অধিকার দেয়া হবে। তার পর নতুন করে অন্যত্র এনআরসি করতে নামবে সরকার।’’

পশ্চিমবঙ্গে এনআরসি করার পক্ষে অবস্থান প্রকাশ করে আসছেন বিজেপি নেতৃত্ব। সোমবার দুপুরে জিরো আওয়ারে বলতে উঠে ঝাড়খণ্ডের গোড্ডার এমপি নিশিকান্ত দুবে বলেন, ‘‘তৃণমূলের শাসনে পশ্চিমবঙ্গে বাংলাদেশী অনুপ্রবেশকারীদের বাড়বাড়ন্ত হয়েছে। ফলে পশ্চিমবঙ্গ ও ঝাড়খণ্ডের বহু জেলায় জনবিন্যাস পাল্টে গেছে।’’ পশ্চিমবঙ্গ ও ঝাড়খণ্ডে এনআরসি-র দাবি করেন দুবে। কোনো রাজ্যের নাম না করে অমিত বলেন, ‘‘সরকার অনুপ্রবেশকারী চিহ্নিত করে নিজেদের দেশে পাঠাতে বদ্ধপরিকর। আসাম ছাড়াও অন্য রাজ্যে এনআরসির প্রশ্নে বিজেপি দায়বদ্ধ।’’