Home ক্যাম্পাস খবর নর্থ সাউথ ইউনিভার্সিটিতে “সেন্টার ফর পিস স্টাডিস (সিপিএস)” এর উদ্বোধন

নর্থ সাউথ ইউনিভার্সিটিতে “সেন্টার ফর পিস স্টাডিস (সিপিএস)” এর উদ্বোধন

SHARE

বিশ্ববিদ্যালয় পরিক্রমা ডেস্ক : বেসরকারী পর্যায়ে উচ্চ শিক্ষার পথপ্রদর্শক, দেশের প্রথম বেসরকারী বিশ্ববিদ্যালয় এবং বেসরকারী
বিশ্ববিদ্যালয়ের মধ্যে র‌্যাংকিং এ প্রথম স্থান অর্জনকারী নর্থ সাউথ ইউনিভার্সিটিতে আজ “সেন্টার ফর পিস
স্টাডিস (সিপিএস)”এর উদ্বোধনী অনুষ্ঠান এর আয়োজন করা হয়।
সেন্টার ফর পিস স্টাডিজ (সিপিএস)-একটি আন্তঃশান্তিমূলক উদ্যোগ, যার উদ্দেশ্য শান্তি প্রতিষ্ঠার মাধ্যমে
একাডেমিক অধ্যয়ন সহজ করা এবং নর্থ সাউথ ইউনিভার্সিটিতে (এনএসইউ) বাস্তবিক এবং অভিজ্ঞতামূলক
গবেষণার মাধ্যমে একটি স্থিতিশীল সমাজের প্রচার করা। একাডেমিক, গবেষক এবং বিভিন্ন ধরনের একাডেমিক
অনুশীলনকারীদের একসাথে সমসাময়িক মানবতাবাদী সংকটগুলির জন্য টেকসই এবং অন্তর্ভুক্তিমূলক
সমাধানগুলিতে আলোকপাত করে একটি শান্তিপূর্ণ বিশ্ব গঠনের লক্ষ্যে একসাথে কাজ করে এমন একটি মাধ্যম হল
সিপিএস। সিপিএস নর্থ সাউথ নর্থ সাউথ ইউনিভার্সিটির সাউথ এশিয়ান ইনস্টিটিউট অফ পলিসি অ্যান্ড
গভর্নেন্সের (এসআইপিজি) অধীনে অবস্থিত।

নর্থ সাউথ ইউনির্ভাসিটির উপাচার্য অধ্যাপক আতিকুল ইসলাম এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রধান বক্তা হিসেবে
উপস্থিত ছিলেন এসআইপিজি এর সিনিয়র ফেলো ও প্রাক্তন পররাষ্ট্র সচিব জনাব মোঃ শহিদুল হক। বিশেষ অতিথি
হিসেবে উপস্থিত ছিলেন নর্থ সাউথ ইউনিভার্সিটির ট্রাস্টি বোর্ডের চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা লায়ন জনাব
বেনজীর আহমেদ। নর্থ সাউথ ইউনিভার্সিটির স্কুল অব হিউম্যানিটিস অ্যান্ড সোশ্যাল সায়েন্সেস এর ডিন,
প্রফেসর ড. আবদুর রব খান বিশেষ আলোচক হিসাবে উপস্থিত ছিলেন।
এসময় জনাব মোঃ শহিদুল হক "পলিটিক্স অফ পিস এন্ড ডেভলপমেন্ট: ভিউস থ্রু এসডিজি লেন্সেস" শীর্ষক একটি
মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন। স্প্রিংজার পাবলিকেশন থেকে প্রকাশিত “দ্য মাইগ্রেশন মিথ ইন পলিসি অ্যান্ড
প্র্যাকটিস” এবং লেক্সিংটন বুকস পাবলিকেশন থেকে প্রকাশিত “দ্য রোহিঙ্গা ক্রাইসিস” নামক দুটি বইও এই
প্রোগ্রামে উন্মোচিত হয়েছে।
জনাব মোঃ শহিদুল হক তাঁর বক্তব্যের শুরুতে সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ বাঙালী জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর
রহমানকে শ্রদ্ধা জানান। এসময়ে তিনি বলেন, জাতির জনক এবং আমাদের সংবিধানের স্বপ্ন পূরণের জন্য সেন্টার
ফর পিস স্টাডিজ (সিপিএস) একটি বড় অংশীদার হতে পারে। তিনি আরও বলেন, বহু শতাব্দী ধরে, মানুষ নিজেদের
ধ্বংস করার অভাবনীয় ক্ষমতা অর্জন করেছে, এটির বিরুদ্ধে লড়াই করতে এবং বিশ্বব্যাপী উন্নয়ন ও শান্তি
নিশ্চিত করতে সিপিএস কার্যকর অধ্যয়ন ও গবেষণা করে অবদান রাখবে।

নর্থ সাউথ ইউনিভার্সিটির ট্রাস্টি বোর্ডের চেয়ারম্যান জনাব বেনজীর আহমেদ বলেন, নর্থ সাউথ ইউনিভার্সিটি
এই অঞ্চলে উচ্চশিক্ষার অন্যতম সেরা প্রতিষ্ঠান হতে আগ্রহী এবং সেই লক্ষে আমাদের আরও গবেষণা
কার্যক্রম এবং যত ধরনের প্রকাশনা প্রয়োজন তা নিশ্চিত করতে হবে। তিনি আরও বলেন, সকল গবেষণা প্রকল্পে
সহায়তা করার জন্য নর্থ সাউথ ইউনিভার্সিটির পর্যাপ্ত অর্থসংস্থান রয়েছে। বক্তব্যের শেষে সিপিএস আমাদের
সমাজে এক ইতিবাচক পরিবর্তন আনবে বলে

তিনি তার আশাবাদ ব্যক্ত করেন।নর্থ সাউথ ইউনির্ভাসিটির উপাচার্য অধ্যাপক আতিকুল ইসলাম বলেন, এই বিশেষ কেন্দ্রটি মূলত কীভাবে সমাজে

শান্তি বজায় রাখতে পারে এবং শান্তি, সংঘাত এবং সমসাময়িক মানবিক সংকট সম্পর্কিত বিষয়গুলিতে গবেষণা
প্রচার ও উত্সাহিত করার বিষয়ে কাজ করছে। নর্থ সাউথ ইউনিভার্সিটি ফলিত গবেষণায় বেশি আগ্রহী যা শেষ
ব্যবহারকারী এবং সর্বজনীন নীতিতে সরাসরি প্রভাব ফেলে।
অনুষ্ঠানে অন্যান্যদের মধ্যে আরও উপস্থিত ছিলেন নর্থ সাউথ ইউনিভার্সিটির উপ উপাচার্য অধ্যাপক ড. এম.
ইসমাইল হোসেন, বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন অনুষদের ডিন, বিভিন্ন বিভাগের পরিচালক, বিভাগীয় প্রধান,
শিক্ষকবৃন্দ,কর্মকর্তাবৃন্দ এবং বিপুল সংখ্যক শিক্ষার্থীবৃন্দ।