Home আন্তর্জাতিক ভারতে করোনায় পুরুষের তুলনায় নারীর মৃত্যু বেশি

ভারতে করোনায় পুরুষের তুলনায় নারীর মৃত্যু বেশি


বিশ্ববিদ্যালয় পরিক্রমা ডেস্ক : মহামারি করোনাভিইরাস বিপর্যয়ে একেক দেশে একেক চিত্র। কোনো কোনো দেশে সংক্রমণে ঊর্ধ্বগতি, কোনো দেশে নিম্নগতি। করোনা তাণ্ডবের এই পর্যায়ে এসে বিশ্বজুড়ে মহামারি কোভিড-১৯ রোগে নারীদের তুলনায় পুরুষদের মৃত্যুর সংখ্যা বেশি। উদাহরণস্বরুপ ইতালি, চীন ও যুক্তরাষ্ট্রে নারীদের তুলনায় অনেক বেশি পুরুষ আক্রান্ত হচ্ছেন আর আক্রান্ত হয়ে যারা মারা যাচ্ছেন তাদের বেশিরভাগই হচ্ছেন পুরুষ। তবে ভিন্ন চিত্র ভারতে।

এক গবেষণায় দেখা যাচ্ছে, যদিও ভারতের আক্রান্তদের মধ্যে বেশিরভাগই হলেন পুরুষ কিন্তু মৃত্যুর ক্ষেত্রে দেখা যাচ্ছে পুরুষদের তুলনায় নারীদের ঝুঁকি অনেক বেশি। গত ২০ মে পর্যন্ত ভারতে কোভিড-১৯ আক্রান্ত হয়ে মৃতদের তালিকার ওপর ভিত্তি করে চালানো এই গবেষণায় দেখা যাচ্ছে, ভারতে যতজন নারী করোনা আক্রান্ত হয়েছেন তার মধ্যে ৩ দশমিক ৩ শতাংশের মৃত্যু হয়েছে। বিপরীতে পুরুষদের ক্ষেত্রে মোট আক্রান্তের মধ্যে মৃত্যুহার ২ দশমিক ৯ শতাংশ।

যখন গবেষণাটি করা হয় তখন ভারতে মোট আক্রান্ত ছিল ১ লাখ ১০ হাজারের বেশি এবং মৃতের সংখ্যা ৩ হাজার ৪৩৩ জন। বর্তমানে দেশটিতে মোট আক্রান্ত ৪ লাখ ৩০ হাজারের বেশি এবং মোট মৃতের সংখ্যা প্রায় ১৪ হাজার। শীর্ষ সংক্রমিত দেশের তালিকায় ভারতের অবস্থান এখন চতুর্থ।

ভারত-মার্কিন বিজ্ঞানীদের ওই গবেষণায় দেখা যাচ্ছে, ভারতে ৪০ থেকে ৪৯ বছর যেসব নারীর ভাইরাসটি সংক্রমিত হয়েছে তাদের মধ্যে ৩ দশমিক মারা গেছেন। অপরদিকে পুরুষদের ক্ষেত্রে একই বয়সী আক্রান্তদের মধ্যে মৃত্যুর হার ২ দশমিক ১ শতাংশ। এছাড়া ৫ থেকে ১৯ বছর বয়সী মৃতদের সবাই নারী, পুরুষ নেই।

ওই গবেষণায় নেতৃত্বদানকারী এবং যুক্তরাষ্ট্রের হার্ভার্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের জনস্বাস্থ্য বিভাগের অধ্যাপক এস ভি সুব্রামানিয়ানকে এর কারণ কি জানতে চাইলে তিনি বিবিসিকে বলেন, ‘মোটের ওপর আমরা এই উপসংহারে পৌঁছেছি যে, যখন আক্রান্ত হন, তখন বাঁচার জন্য (ভারতে) নারীরা নির্দিষ্ট কোনো সুবিধা পান না।’

তিনি আর বলেন, ‘তাদের (নারীদের) ক্ষেত্রে এমন ঘটনার পেছনে বায়োলজিক্যাল গঠন কতটা দায়ী এবং এর নেপথ্যে সামাজিক কারণগুলো কতটা জড়িত তা অস্পষ্ট। তবে লৈঙ্গিক পার্থক্যের বিষয়টি ভারতীয় প্রেক্ষাপটের জন্য এর একটি গুরুত্বপূর্ণ কারণ হতে পারে।’