Home ব্রেকিং খালেদা জিয়ার আরোগ্য কামনায় বিএনপির দোয়া মাহফিল

খালেদা জিয়ার আরোগ্য কামনায় বিএনপির দোয়া মাহফিল


আজ ১৫ আগস্ট বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার ৭৬ তম জন্মদিন পালন করছে বিএনপি। এ উপলক্ষে তার আরোগ্য ও দীর্ঘায়ু কামনায় দলের পক্ষ থেকে দোয়া মাহফিলের আয়োজন করা হয়। শনিবার (১৫ আগস্ট) রাজধানীর নয়া পল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের নিচতলায় শতাধিক নেতাকর্মীরা এ মাহফিলে অংশ নেন।

‘দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়ার আশু আরোগ্য ও সুস্থতার কামনা, দেশবাসী ও দলের নেতাকর্মীদের করোনা ও অন্যান্য রোগে মৃত্যুবরণে তাদের আত্মার মাগফেরাত কামনা ও বন্যায় ক্ষতিগ্রস্ত মানুষের দুদর্শা থেকে রেহাই পেতে দোয়া ও মিলাদ মাহফিল’ শীর্ষক দোয়া মাহফিলে বিএনপির জ্যেষ্ঠ কয়েকজন নেতা অংশগ্রহণ করেন।

দোয়া মাহফিলে দলের সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী বলেন, ‘আমরা আমাদের প্রিয় নেত্রী দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়ার জন্য আল্লাহর কাছে আরোগ্য কামনা করবো। এদেশের মানুষ, এদেশের জনগণ, এদেশের বাক স্বাধীনতা-আমরা যদি এগুলোর কথা বলি, এগুলো রক্ষার কথা বলি, এগুলো আদায়ের কথা বলি তাহলে একটি নাম উদ্ভাসিত হয় জনতার মানসপটে। বাংলাদেশের দৃশ্যপটে যে বড় প্রতিকৃতিটা আমাদের সামনে ভেসে উঠে সেটি হচ্ছে দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়া।’.

বিএনপির দোয়া মাহফিল

রিজভী আরও বলেন, ‘শোক-দুঃখ-বেদনায় যিনি জনগণকে ছেড়ে যাননি, জনগণের পাশে থেকেছেন। দুই বছর অন্যায়ভাবে সাজা দিয়ে জেলে রাখা হয়েছে। তবুও তিনি অক্ষয়-অব্যয় গণতন্ত্রের প্রশ্নে মাথা নত করেননি। আমি তার দীর্ঘায়ু কামনা করছি। আল্লাহ’তালা তার দীর্ঘজীবন দান করবেন। আমরা যে দুঃসময়, অন্ধকারে আছি, এই অন্ধকার থেকে আমরা মুক্তি পাবো দেশনেত্রীকে যখন আমরা আমাদের সঙ্গে পাবো।’
দোয়া মাহফিলে মোনাজাত পরিচালনা করেন জাতীয়তাবাদী উলামা দলের সদস্য সচিব মাওলানা নজরুল ইসলাম তালুকদার। দলের স্বেচ্ছাসেবক বিষয়ক সম্পাদক মীর সরফত আলী সপুর পরিচালনায় অনুষ্ঠানে বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব খায়রুল কবির খোকন, হাবিব উন নবী খান সোহেলও বক্তব্য রাখেন।
মিলাদ মাহফিলে বিএনপির আবদুস সালাম আজাদ, শহিদুল ইসলাম বাবুল, শামীমুর রহমান, ডা. রফিকুল ইসলাম, হায়দার আলী খান লেলিন, কাজী আবুল বাশার, রফিক শিকদার, শ্রমিক দলের আনোয়ার হোসেইন, স্বেচ্ছাসেবক দলের মোস্তাফিজুর রহমান, আবদুল কাদির ভুঁইয়া জুয়েল, ছাত্রদলের ফজলুর রহমান খোকন, জাসাসের জাকির হোসেন রোকন, শাহরিয়ার ইসলাম শায়লা, জাহাঙ্গীর আলম রিপন প্রমুখ নেতারা উপস্থিত ছিলেন।
বিএনপির একাধিক দায়িত্বশীল সূত্রে জানা গেছে, গুলশানে নিজের ভাড়া করা বাসভবন ‘ফিরোজা’তেই আছেন খালেদা জিয়া। জন্মদিন উপলক্ষে বাসায় কোনও আয়োজন নেই। শনিবার দুপুর পর্যন্ত কোনও আত্মীয়স্বজন তার বাসায় যায়নি বলে খবর পাওয়া গেছে। তবে এদিন বিকালে যথারীতি কাছের একাধিক স্বজন যাবেন সাক্ষাতে। দলের কোনও নেতাকর্মীরও তার বাসায় যাওয়ার সম্ভাবনা কম বলে দাবি করেছে সূত্রটি। তবে সিনিয়র এক বা একাধিক নেতা যেতে পারেন বলে জানিয়েছেন একজন নেতা।
খালেদা জিয়ার ৭৬ তম জন্মদিন উপলক্ষ্যে তার দীর্ঘায়ু ও সুস্থতা কামনা করেছে স্বেচ্ছাসেবক দল। শনিবার দুপুরে বিএনপির দফতর থেকে পাঠানো এক বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, জাতীয়তাবাদী স্বেচ্ছাসেবক দলের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি মোস্তাফিজুর রহমান এবং সাধারণ সম্পাদক আব্দুল কাদির ভূইয়া জুয়েল বলেন, ‘অতীতে বেগম খালেদা জিয়া সব স্বৈরাচারের কবল থেকে গণতন্ত্র পুনঃপ্রতিষ্ঠার আন্দোলন-সংগ্রামে নেতৃত্ব দিয়ে ঐতিহাসিক ভূমিকা রেখেছেন। আগামী দিনেও তার নেতৃত্বে হারানো গণতন্ত্র পুনঃরুদ্ধার এবং গণতান্ত্রিক সরকার প্রতিষ্ঠার চলমান আন্দোলনে রাজপথে থাকতে বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী স্বেচ্ছাসেবক দল প্রতিজ্ঞাবদ্ধ।’