Home আইন/আদালত দুদকের মামলায় খালাস পেলেন ইশরাক

দুদকের মামলায় খালাস পেলেন ইশরাক

SHARE

বিশ্ববিদ্যালয় পরিক্রমা ডেস্ক :  দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) কাছে সম্পদের বিবরণী দাখিল না করার অভিযোগে ১০ বছর আগে দায়ের করা মামলায় সাবেক মেয়র সাদেক হোসেন খোকার ছেলে ইঞ্জিনিয়ার ইশরাক হোসেনকে খালাস দিয়েছেন আদালত।

সোমবার (২৩ নভেম্বর) ঢাকার বিশেষ জজ আদালত-৪ এর বিচারক শেখ নাজমুল আলমের আদালত এই রায় ঘোষণা করেন। গত ১১ নভেম্বর যুক্তিতর্ক উপস্থাপন শেষে আদালত রায়ের জন্য ২৩ নভেম্বর ধার্য করেন।

এদিন সকাল ১০ টার দিকে ইশরাক হোসেন আদালতে উপস্থিত হন। এরপর দুপুর ২টা ১০ মিনিটে আসামি ইশরাকের উপস্থিতিতে বিচারক রায় পড়া শুরু করেন। রায় পড়া শেষ হলে বিচারক দুপুর ২টা ৩৫ মিনিটে এ রায় ঘোষণা করেন।

এর আগে চলতি বছরের ১৫ জানুয়ারি আদালত আসামি ইশরাক হোসেনের বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠন করেন। এরপর গত ১৯ অক্টোবর এ মামলার সাক্ষ্যগ্রহণ শেষ হয়। মামলায় বিভিন্ন সময় আদালতে মোট ৮ সাক্ষীর মধ্যে ৬ জন সাক্ষ্য দিয়েছেন।

মামলা সূত্রে জানা যায়, ২০০৮ সালের সেপ্টেম্বর মাসে অবিভক্ত ঢাকা সিটি করপোরেশনের শেষ মেয়র সাদেক হোসেন খোকার ছেলে ইশরাক হোসেনকে সম্পদ বিবরণী দাখিলে নোটিশ দেয় দুদক। নির্দিষ্ট সময়ে বিবরণী জমা না দেওয়ায় ২০১০ সালের আগস্টে তাঁর বিরুদ্ধে রমনা থানায় মামলা দায়ের করা হয়। মামলার বাদী ছিলেন দুদকের ওই সময়ের সহকারী পরিচালক মো. শামছুল আলম।

মামলায় অভিযোগ করা হয়, সাদেক হোসেন খোকার স্থাবর-অস্থাবর অনেক সম্পত্তি রয়েছে তাঁর দুই ছেলে-মেয়ের নামে। তাঁরা এসব সম্পদের উৎস দেখাতে ব্যর্থ হয়েছেন। তাঁদের সম্পত্তির হিসাব দাখিলের নোটিশ দেওয়া হলেও তা দাখিল করেননি তাঁরা। এটি দুদক আইনের ২৬(২) (ক) ধারা অনুযায়ী শাস্তিযোগ্য অপরাধ হওয়ায় মামলা এ দায়ের করা হয়।

মামলাটিতে গত ১৯ অক্টোবর সাক্ষ্যগ্রহণ শেষ হয়। চার্জশিটভুক্ত আট সাক্ষীর মধ্যে ছয় জনের সাক্ষ্যগ্রহণ করেন আদালত। গত ২৭ অক্টোবর ইশরাক নিজেকে নির্দোষ দাবি করে ন্যায় বিচার প্রার্থনা করেন। গত ১১ নভেম্বর দুদক ও আসামিপক্ষের যুক্তিতর্ক উপস্থাপন শেষে আদালত রায়ের তারিখ ধার্য করেন।