Home ক্যাম্পাস খবর জাতিসত্ত্বাকে ধর্ম দিয়ে বিভাজন করা যায় না: অধ্যাপক নেহাল আহমেদ

জাতিসত্ত্বাকে ধর্ম দিয়ে বিভাজন করা যায় না: অধ্যাপক নেহাল আহমেদ

SHARE

জাতিসত্ত্বাকে ধর্ম দিয়ে বিভাজন করা যায় না, ধর্ম দিয়ে কখনো দেশ হয় না বলে মন্তব্য করেছেন মাধ্যমিক ও উচ্চমাধ্যমিক শিক্ষাবোর্ড ঢাকা চেয়ারম্যান প্রফেসর নেহাল আহমেদ ।

১৬ ডিসেম্বর (বুধবার) মহান বিজয় দিবস উদযাপন উপলক্ষ্যে আ.ন. ম নজিব উদ্দিন খান খুররম অডিটোরিয়ামে আলোচনা সভায় আলোচনা সভায় এ মন্তব্য করেন তিনি। অনুষ্ঠান শেষে বর্ণাঢ্য র‌্যালি ও বঙ্গবন্ধুর ধানমন্ডির প্রতিকৃতিতে পুষ্পস্থাবক অর্পণ করে তারা।

এ বছর কোভিড-১৯ পরিস্থিতিতে স্বাস্থ্যবিধি মেনে সীমিত পরিসরে এসব কর্মসূচি পালিত করে কলেজ প্রশাসন। আলোচনা সভার শেষে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন থাকলেও সদ্য ঢাকা কলেজের ইসলামের ইতিহাস ও সংস্কৃতি বিভাগের অধ্যাপক আফরোজা সুলতানা ইন্তেকালে অনুষ্ঠান স্থগিত করে কলেজ প্রশাসন।

অধ্যক্ষ নেহাল আহমেদ বলেন, স্বাধীনতার অপশক্তি আজও সক্রিয়। স্বাধীনতার মহান স্থপতির শেখ মুজিবুর রহমানের ভাষ্কর্য নিয়ে কথা বলছে। যারাই ভাষ্কর্য নিয়ে কথা বলছে তারাই পাকিস্তানি আল-বদর, রাজাকার।

এসময় তিনি আরও বলেন, আমাদের নবী মোহাম্মদ (সাঃ) স্ত্রী আয়েশা (রাঃ) পুতুল নিয়ে খেলা করেছেন। তখন তো নবী এ বিষয়ে নিষেধ করেননি। যারা ভাষ্কর্য নিয়ে কথা বলে তারা মুক্তিযুদ্ধের সেই রাজাকারদের অনুযায়ী বলেও উল্লেখ করেন তিনি।

মুসলিম বিশ্বের কথা উল্লেখ করে তিনি আরও বলেন, প্রতিটি মুসলিম দেশে ভাষ্কর্য আছে। ইসলাম কখনো যুদ্ধ করে আসেনি। কিছু হুজুরেরা দেশের মধ্যে, মানুষের মধ্যে অশান্তি সৃষ্টি করছে তারাই স্বাধীনতা বিরোধী আলবদর, রাজাকার। হুজুরদের বিষয়গুলোই জঙ্গি সৃষ্টি করে। বর্তমান সময়ে হুজুরেরা ব্যাবসা করছে। ওয়াজ-মাহফিল গুলো আজ গানের মঞ্চে পরিণত হয়েছে।

অনুষ্ঠান শেষে শহীদ বুদ্ধিজীবী দিবস রচনা প্রতিযোগিতা সহ বিভিন্ন ক্যাটাগরিতে বিজয়ীদের পুরস্কার বিতরণ করা হয়। বেলা ২ টায় বঙ্গবন্ধুর ধানমন্ডির প্রতিকৃতিতে পুষ্পস্থাবক অর্পণ করে ঢাকা কলেজ।

অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন ঢাকা কলেজ অধ্যক্ষ (ভারপ্রাপ্ত) প্রফেসর এটিএম মইনুল হোসেন। এতে আরো উপস্থিত ছিলেন শিক্ষক পরিষদের সাধারণ সম্পাদক ড. আব্দুল কুদ্দুস শিকদার সহ বিভিন্ন বিভাগের শিক্ষক, কর্মচারী ও শিক্ষার্থী।