Home আন্তর্জাতিক এনার্জি স্টোরেজের ব্যবস্থাপনা টেকসই করা সময়ের দাবী: বিদ্যুৎ প্রতিমন্ত্রী

এনার্জি স্টোরেজের ব্যবস্থাপনা টেকসই করা সময়ের দাবী: বিদ্যুৎ প্রতিমন্ত্রী

SHARE
বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ বলেছেন, এনার্জি স্টোরেজ-এর ব্যবস্থাপনা টেকসই করা সময়ের দাবী । নাবায়নযোগ্য জ্বালানি ও ইলেকট্রিক ভিহাইকেলের ব্যবহার যত বাড়বে এনার্জি স্টোরেজ-এর প্রয়োগও তত বাড়বে। এনার্জি স্টোরেজ ব্যবহার মূল্য সাশ্রয়ী হতে হবে।
প্রতিমন্ত্রী আজ এনার্জী এন্ড পাওয়ার ম্যাগাজিনের উদ্যোগে আয়োজিত “Storage Applications in Bangladesh Power Szstem” শীর্ষক ওয়েবিনারে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন। তিনি বলেন, বাংলাদেশের পরিপ্রেক্ষিতে পিক-অফপিক আওয়ার, সাশ্রয়ী জ্বালানি, স্টোরেজ ব্যবস্থাপনা নির্ধারণ করা প্রয়োজন। নবায়নযোগ্য জ্বালানির পুরো সুবিধা নিতে হলে, Energy Storage নিয়ে ভাবার বিকল্প নেই । তাছাড়া, অফ পিকে বিদ্যুতের চাহিদা কম থাকে, এই সময়ের বিদ্যুৎ storage এর মাধ্যমে বিদ্যুতের পিক চাহিদাও মেটানো সম্ভব হবে।
প্রতিমন্ত্রী আরো বলেন, Economics এবং অন্যান্য কারিগরি দিক বিবেচনা করে আমাদের দেশের জন্য Energy Storage- এর কোন কোন উপায় বেশি কার্যকরী হবে ও পরিবেশগত এবং কারিগরি চ্যালেঞ্জ কী হতে পারে তা খুঁজে বের করতে হবে। গবেষণার জন্য অর্থায়ন বাংলাদেশ জ্বালানি ও বিদ্যুৎ গবেষণা কাউন্সিল হতে সংগ্রহ করা যেতে পারে এবং স্রেডা হতে প্রয়োজনীয় লজিস্ট্রিক সাপোর্ট পাওয়া যেতে পারে।
আজকের এই ওয়েবিনারে মূল প্রবন্ধ উপস্থাপনা করেন যুক্তরাস্ট্রের অটোমেশন ও পাওয়ার সলিশন বিষয়ক সফটওয়্যার প্রতিষ্ঠান ইট্যাব -এর ভিপি অপটিমাইজেশন ড. আহমেদ সাবের। তিনি বিভিন্ন ধরনের ব্যাটারি ও তার ধারন ক্ষমতা, নবায়নযোগ্য জ্বালানি ও এর চ্যালেঞ্জ, এনার্জী স্টোরেজ পোডাক্টস, সোপ-ক্যাপ, ফোয়েল সেল, পাম্প স্টোরেজ, টেকসই জ্বালানি  ইত্যাদি বিষয় তাঁর উপস্থাপনায় আলোকপাত করেন।
এনার্জী এন্ড পাওয়ার ম্যাগাজিনের সম্পাদক মোল্লাহ আমজাদ হোসেনের সঞ্চালনায় ভার্চুয়াল এই অনুষ্ঠানে অন্যান্যের আলোচ্য বিষয়ের উপর মূল উপস্থাপনা পেশ করেন- ভিপি অপটিমাইজেশন অ্যান্ড এআই ইটিএমপি আরঅ্যান্ডডি-এর ড. আহমেদ ইউসুফ সাবের। আলোচনায় অংশ নেন বুয়েটের ইনস্টিটিউট অব নিউক্লিয়ার পাওয়ার ইঞ্জিনিয়ালিং এর পরিচালক প্রফেসর ড. আবদুল হাসিব চৌধুরী, সাসটেনেবল অ্যান্ড রিনিয়েবল এনার্জি ডেভলপমেন্ট অথরিটির চেয়ারম্যান ও অতিরিক্ত সচিব মোহাম্মদ আলাউদ্দিন, পাওয়ার সেলের মহাপরিচালক ইঞ্জি. মোহাম্মদ হোসেন, আস্টেলিয়ান সায়েন্স এজেন্সি সিএআইআরও এর সিনিয়র সায়েন্সটিস্ট ড. নওশাদ হক, সোলারিকের ব্যবস্থাপনা পরিচালক জনাব দিদার ইসলাম, পিজিসিবি সুপারিনটেডেন্ট ইঞ্জিনিয়ার আদিল চৌধুরী ও জিআইজেড এর রিনিয়েবল এনার্জি অ্যান্ড এনার্জি এফিসিয়ৈন্সী গ্রোগ্রামের প্রধান আল মুদাবির বিন আনাম।
বক্তরা বলেন, ফসিল ফুয়েলের বিকল্প হিসাবে নবায়নযোগ্য জ্বালানির ব্যবহার বৃদ্ধি করতে চাইলে গ্রীডের সাথে সমন্বয়ের জন্য স্টোরেজ সিস্টেম ব্যবহার জরুরি। কিন্তু গত ১০ বছরে এনার্জি স্টোরেজের ব্যয় অনেক কমে আসলেও এখনো ব্যয়বহুল। ফলে বাংলাদেশে এটা কোথায়, কখন এবং কীভাবে করা উচিত তা নিয়ে একটি বিস্তারিত সমীক্ষা করা প্রয়োজন। একই সাথে পাওয়ার সিস্টেম মাস্টার প্লানেও স্টোরেজ অন্তর্ভক্ত করা উচিত।