Home লাইফস্টাইল সারাটা জীবন মানুষের সেবক হিসাবে কাজ করে যেতে চাই!শিল্পপতি আলহাজ্ব আবুল হাসেম...

সারাটা জীবন মানুষের সেবক হিসাবে কাজ করে যেতে চাই!শিল্পপতি আলহাজ্ব আবুল হাসেম রতন।

SHARE

রিপোর্ট:- আবু কাউসার আহমেদ:-দিনের শুরুটা হয় তার মানুষের সেবা করে। স্বপ্ন দেখে সোনারগাঁ উপজেলা সনমান্দী ইউনিয়নের সুবিধাবঞ্চিত, অসহায় মানুষের পাশে থাকার। এটাই তার নিত্যদিনের কাজ।

নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁ উপজেলার সনমান্দি ইউনিয়নের একজন মানবতার ফেরিওয়ালা হিসেবে পরিচিতি পেয়েছেন আলহাজ্ব আবুল হোসেন রতন। উপজেলার মুসলিম ঐতিহ্যবাহী পরিবারের সূর্যসন্তান মানবতার ফেরিওয়ালা
আত্মমানবতার সেবক শিক্ষানুরাগী, ধার্মিক, আদর্শবান, উজ্জ্বল নক্ষত্র জনপ্রিয় ব্যক্তি জনপ্রিয় ব্যক্তি জিনিস সর্বদাই সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দেন। তিনি অসহায় হতদরিদ্র সাধারণ মানুষের কল্যাণে দীর্ঘদিন যাবত কাজ করে যাচ্ছেন। যাদের থাকা খাওয়া ও চিকিৎসা করার মত সামর্থ্য নেই তাদের পাশে দাঁড়িয়ে থাকা খাওয়া ঘরবাড়ি চিকিৎসা খরচ সহ টাকার অভাবে মেয়েদের বিয়ে হচ্ছে না তাদের নগদ অর্থ সহায়তা করে যাচ্ছেন। অর্থের অভাবে যেন লেখাপড়া বন্ধ না হয় সেদিকে বিশেষ
দৃষ্টি দিয়ে মেধাবী ছাত্র-ছাত্রীদের নিয়মিত অর্থ দিয়ে যাচ্ছেন তিনি জানা যায়। সনমান্দি ইউনিয়নের হত দরিদ্র শীতার্তদের মাঝে শীতবস্ত্র নিয়ে পাশে দাঁড়িয়েছিলেন তিনি।
সাধারণ মানুষের বিপদে-আপদে সর্বক্ষণ তিনি পাশে দাঁড়ান। বয়স্ক প্রতিবন্ধী বিধবাদের দিচ্ছেন আর্থিক ও মানবিক সাহায্য। তাই তিনি সাধারণ মানুষের কাছে জনসেবক আদর্শবান মানবতার ফেরিওয়ালা হিসেবে ব্যাপক জনপ্রিয়তা অর্জন করেছেন। এছাড়া ধর্মীয় প্রতিষ্ঠান মসজিদ, মাদ্রাসা ওয়াজ মাহফিল পর্যন্ত পরিমাণে অর্থ দান করে যাচ্ছেন। শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ক্লাব, সংঘ, খেলাধুলা আচার-অনুষ্ঠান ও দলীয় বিভিন্ন অনুষ্ঠানে চাহিদামত অর্থ দিয়ে যাচ্ছেন তিনি।

মানবতার ফেরিওয়ালা এফবিসিসিআইয়ের কার্যনির্বাহী সদস্য ও স্বর্ণা ইলেকট্রনিক এর ব্যবস্থাপনা পরিচালক শিল্পপতি আবুল হাসেম রতন বলেন,
দেশের এই ক্রান্তিলগ্নে মানুষের পাশে দাঁড়ানো আমাদের সকলের নৈতিক দায়িত্ব। সাম্প্রতিক সময়ে করোনা প্রাদুর্ভাবের জন্য দেশ জুড়ে সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখা এবং অফিস আদালত ছুটিসহ সারাদেশে লকডাউন এর কারণে শ্রমজীবী, দিনমজুর, অসহায় মানুষ কর্মহীন হয়ে পড়েছে। তাই তাদের পরিবার
খাদ্য সংকট এর মতো মানবিক বিপর্যয়ের সম্মুখীন হতে হয়েছে। তাই অসহায় কর্মহীন হতদরিদ্র পরিবারের মাঝে আমার এই ক্ষুদ্র প্রয়াস। আমি আমার কর্তব্যবোধ থেকে সাধ্যমত চেষ্টা করে যাচ্ছি এবং নিভৃতে নিরলস ভাবে অসহায় হতদরিদ্র মানুষের পাশে থাকব যতদিন বেঁচে থাকবো। যতদিন বাচবো এলাকাবাসীর সেবা করে যাবো ইনশাল্লাহ।