Home ক্যাম্পাস খবর সাত কলেজে সশরীরে পরীক্ষায় কতটুকু মানা হচ্ছে স্বাস্থ্যবিধি!

সাত কলেজে সশরীরে পরীক্ষায় কতটুকু মানা হচ্ছে স্বাস্থ্যবিধি!

SHARE

করোনার টিকা ও আবাসিক হল খোলা ছাড়াই সশরীরে শুরু হয়েছে সাত কলেজের পরীক্ষা। তবে সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখেই স্বাস্থ্যবিধি মেনে নেয়া হচ্ছে সাত কলেজের পরীক্ষা। করোনায় সশরীরে পরীক্ষার হলে করোনা সংক্রমণের ঝুঁকি নিয়ে থাকছে অনিশ্চয়তা। যার ফলে সশরীরে পরীক্ষা হওয়া নিয়ে ছিল নানান পক্ষ-বিপক্ষ। সশরীরে পরীক্ষা নেয়ার পরিবর্তে অনলাইনে পরীক্ষার দাবিও জানায় সাত কলেজের অধিকাংশ শিক্ষার্থীরা কিন্তু সে দাবিকে পুরোপুরি নাকছ করে দিয়েছিলেন সাত কলেজ প্রশাসন। অনলাইনে পরীক্ষা থাকার সুযোগ থাকলেও সাত কলেজে প্রশাসনের বক্তব্য ছিল ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের একাডেমিক কাউন্সিলের সিদ্ধান্ত ছাড়া অনলাইনে পরীক্ষা নেয়া সম্ভব নয়।

বৃহস্পতিবার (২সেপ্টেম্বর) রাজধানীর তিতুমীর কলেজ কেন্দ্রে স্বাস্থ্যবিধি মেনে সশরীরে পরীক্ষা শুরু হতে দেখা যায়। অন্য কলেজগুলোতেও খোঁজ নিয়ে জানা যায় স্বাস্থ্যবিধি মেনে পরীক্ষা হচ্ছে। তিতুমীর কলেজ কেন্দ্রে পরীক্ষা দিতে আসা সরকারি বাঙলা কলেজের শিক্ষার্থীরা স্বাস্থ্যবিধি মেনে সশরীরে পরীক্ষা দিতে পেরে উৎসাহ প্রকাশ করে। তিতুমীর কলেজের এ কেন্দ্রে পরীক্ষা দিতে আসা শিক্ষার্থীর সংখ্যা প্রায় ১ হাজার। শুরুতেই অগ্রাধিকার ভিত্তিতে স্নাতক ২য় বর্ষের অনিয়মিত, মানোন্নয়ন ও বিশেষ (অনিয়মিত ও মানোন্নয়ন) পরীক্ষা হচ্ছে। পরে অন্যান্য বর্ষের নিয়মিত পরীক্ষা কার্যক্রমও সশরীরেই শুরু হবে।

তিতুমীর কলেজের পরীক্ষা দিতে আসা শিক্ষার্থী সাকিব রহমান বলেন, র্দীঘ দিন পর পরীক্ষার টেবিলে বসেছি। প্রথমে আশংকা ছিল যে, করোনা সংক্রমণ ও স্বাস্থ্যবিধি মেনে পরীক্ষা সম্ভব কিনা। তবে পরীক্ষা দিতে এসে মনে হয়েছে পরিবেশ ভালো। ‍নির্দিষ্ট টেবিল পরপর বসানো হয়েছে আমাদের। দুই শিক্ষার্থীর মাঝে ফাঁকাও রাখা হয়েছে। এমন ব্যবস্থাপনায় আমরা খুশি।

আরেক শিক্ষার্থী বলেন, যেভাবেই হোক আমাদের পরীক্ষাগুলো শেষ করা উচিত ছিল। সশরীরে পরীক্ষা হওয়ার কারণে র্দীঘ দিন পর ক্যাম্পাসে এসেছি ভালো লাগছে।

এ সর্ম্পকে সরকারি তিতুমীর কলেজের অধ্যক্ষ প্রফেসর মোঃ আশরাফ হোসেন বলেন, আমরা চেষ্টা করেছি শিক্ষার্থীদের মাঝে যাতে ঝুঁকি সৃষ্টি না হয় সে বিষয়ে লক্ষ্য রাখছি। স্বাস্থ্যবিধি মেনেই পরীক্ষার আসন রেখেছি। আগামী পরীক্ষাগুলোও সামাজিক দূরত্ব ও স্বাস্থ্যবিধি মেনে নেয়া হবে।

SHARE