Home খেলাধূলা নেপালের বিপক্ষে ৩-০ গোলে এগিয়ে বাংলাদেশ

নেপালের বিপক্ষে ৩-০ গোলে এগিয়ে বাংলাদেশ

SHARE

নেপালের বিপক্ষেও একের পর এক গোল করে যাচ্ছে বাংলাদেশ অনূর্ধ্ব-১৫ নারী ফুটবল দল। প্রথমার্ধে ১-০ গোলে এগিয়ে যায় মারিয়া মান্ডারা। দ্বিতীয়ার্ধে গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন হওয়ার জন্য একের পর এক আক্রমণ চালায়।

নেপালের বিপক্ষে ৮০ মিনিটের খেলা শেষে বাংলাদেশ ৩-০ নেপাল। খেলার ৬৭ মিনিটে সাজিদা খাতুন প্রতিপক্ষে ডিফেন্ডার এবং কিপারকে বোকা বানিয়ে গোলে নিশ্চিত করে বাংলাদেশকে ৩-০তে ব্যবধানে এগিয়ে নেন।

প্রথমার্ধের বিরতি থেকে ফিরে আগের চেয়ে আরও বেশি মরিয়া হয়ে খেলে বাংলাদেশ। খেলার ৫১ মিনিটে মারিয়া মান্ডার গোলে ব্যবধান দ্বিগুণ (২-০) করে বাংলাদেশ অনূর্ধ্ব-১৫ নারী ফুটবল দল। ডি বক্সের বাইর থেকে বাঁ পায়ের জোরালো শটে গোল নিশ্চিত করেন মারিয়া।

খেলার ৪৫ মিনিটে তহুরা খাতুনের করা প্রথম গোল করে দলকে এগিয়ে নেন বাংলাদেশ নারী দলের ফুটবলাররা। প্রথমার্ধের খেলা শেষে বাংলাদেশ ১-০ গোলে এগিয়ে ছিল।

গোল হয়েও হলো না!

নেপালের বিপক্ষে খেলার ৩৫ মিনিটে প্রতিপক্ষের পোস্টে ঢুকে গোল দেন বাংলাদেশের ডিফেন্ডার। কিন্তু রেফারি অফসাইডের সংকেত দিলে, গোল থেকে বঞ্চিত হয় বাংলাদেশ নারী ফুটবল দল।

গ্রুপ সেরার লড়াইয়ে নেপালের মুখোমুখি নারী ফুটবল দল
সাফ অনূর্ধ্ব-১৫ চ্যাম্পিয়নশিপে নেপালের বিপক্ষে খেলছে বাংলাদেশ নারী ফুটবল দল। ভুটানের চাংলিমিথাং স্টেডিয়ামে বাংলাদেশ সময় সন্ধ্যা সাতটায় খেলাটি শুরু হয়েছে।

প্রতিযোগিতার প্রথম ম্যাচে বাংলাদেশ ১৪-০ গোলে ভারতকে পরাজিত করে। গত শনিবার পাকিস্তানের বিপক্ষে নেপাল জেতায় এক ম্যাচ হাতে রেখেই বাংলাদেশের সেমিফাইনাল নিশ্চিত হয়ে গেছে। আর টানা দুই ম্যাচ হেরে গ্রুপপর্ব থেকেই বিদায় নিয়েছে নবাগত পাকিস্তান।

তাই বাংলাদেশ ও নেপালের মধ্যমার আজকের ম্যাচটি গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন হওয়ার লড়াই। এদিন যারাই জিততে তারা বি-গ্রুপ থেকে চ্যাম্পিয়ন হয়ে পা রাখবে সেমিতে।

নেপাল বলেই দাপুটে জয়ের প্রত্যাশা নিয়ে মাঠেরে লড়াইয়ে বাংলাদেশ। কারণ গত বছর ডিসেম্বরে ঢাকায় অনুষ্ঠিত এই টুর্নামেন্টের প্রথম আসরে গ্রুপপর্বে নেপালকে ৬-০ গোলে হারিয়েছিল স্বাগতিকরা।