Home জাতীয় প্রধানমন্ত্রীর মুখ্য সচিবের সাভারস্থ বিসিক চামড়া শিল্পনগরী  এবং সিইটিপি পরিদর্শন

প্রধানমন্ত্রীর মুখ্য সচিবের সাভারস্থ বিসিক চামড়া শিল্পনগরী  এবং সিইটিপি পরিদর্শন

SHARE

সাভার (ঢাকা), ৭ জানুয়ারি ২০২৩ঃ আজ সকালে প্রধানমন্ত্রীর মুখ্য সচিব মোঃ তোফাজ্জল হোসেন মিয়া সাভারের হেমায়েতপুরে অবস্থিত বিসিক চামড়া শিল্পনগরী এবং সিইটিপি পরিদর্শন করেছেন। এসময় তিনি সংশ্লিষ্ট সরকারি কর্মকর্তা, বিটিএ ও বিএফএলএলএফইএ’র প্রতিনিধি এবং ট্যানারি মালিকগণের সাথে মতবিনিময় সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে বলেন, ট্যানারি মালিকরা পরিবেশের TDS এর ব্যাপারে পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তন মন্ত্রনালয়ের সচিব এর সাথে আলোচনা করে এ সমস্যার সমাধান করতে পারেন। ট্যানারি শিল্পনগরীর সমস্যাগুলো চিহ্নিত করে শিল্পসচিবের মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে একটি আলোচনা সভার আয়োজনের ব্যাপারে মুখ্য সচিব নির্দেশনা প্রদান করেন। তিনি আরও বলেন, বিসিক ইচ্ছা করলে গ্রিন ক্লাইমেট ফান্ড থেকে ফান্ড নিয়ে একটি তহবিল গঠন করতে পারে। একই সাথে তিনি ট্যানারি মালিকদের বিনিয়োগ পরবর্তী সেবার বিষয়ে বিভিন্ন দিকনির্দেশনা প্রদান করেন। মুখ্য সচিব আরও বলেন, আমরা সবাই মিলে যদি একসাথে কাজ করি তাহলে আমরা সহজেই কমপ্লায়েন্স অর্জন করতে পারবো এবং এ সমস্যার সমাধান হবে। উক্ত মতবিনিয়ময় সভায় শিল্প মন্ত্রণালয়ের সচিব জনাব জাকিয়া সুলতানা , পরিবেশ, বন ও জলবায়ু মন্ত্রণালয়ের সচিব ড. ফারহিনা আহমেদ , বিসিক চেয়ারম্যান জনাব মুহঃ মাহবুবর রহমান (গ্রেড-১), ঢাকা জেলা প্রশাসকসহ সরকারের বিভিন্ন পর্যায়ের ঊর্ধতন কর্মকর্তাগণ, ট্যানারী মালিকগণ ও স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যাক্তিগণ উপস্থিত ছিলেন। বিসিক চেয়ারম্যান পাওয়ার পয়েন্ট প্রেসেন্টেশনের মাধ্যমে বিসিকের কর্মকান্ড তুলে ধরেন এবং DTIEWTPCL এর ব্যবস্থাপনা পরিচালক মোঃ মোস্তাক আহমেদ বিসিক চামড়া শিল্পনগরী ও সিইটিপির উপর পাওয়ারপয়েন্ট প্রেসেন্টেশন দেন। এসময় মুক্ত আলোচনায় অংশ গ্রহণ করে ট্যানারী মালিকগণ তাদের বিভিন্ন সমস্যার কথা তুলে ধরেন। শিল্প সচিব জনাব জাকিয়া সুলতানা তাঁর বক্তব্যে বলেন, আমরা ট্যানারীর সমস্যাসমূহ সমাধানে কাজ করে যাচ্ছি। আশা করি সবাই একসাথে কাজ করলে আমরা এ সমস্যা সমাধান করতে পারবো। পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তন মন্ত্রনালয়ের সচিব ড. ফারহিনা আহমেদ বলেন, পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তন মন্ত্রনালয়ের পক্ষ থেকে আমরা এর আগেও এ শিল্প নগরী ও সিইটিপি পরিদর্শন করে কিছু সুপারিশ দিয়েছি এগুলো বাস্তবায়ন করা গেলে এ সমস্যা থেকে উত্তরণ করা সম্ভব হবে

SHARE