Home জাতীয় শীতার্তদের মাঝে কম্বল বিতরণ করলেন কাউন্সিলর আকাশ কুমার

শীতার্তদের মাঝে কম্বল বিতরণ করলেন কাউন্সিলর আকাশ কুমার

SHARE
ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশনের ৫৯ নম্বর ওয়ার্ডে শীতার্ত দুস্থ ও অসহায় মানুষের মাঝে কম্বল ও শাল চাঁদর বিতরন করেন।

খোরশেদ আলম শিকদার : কনকনে শীত জেঁকে ধরেছে সবাইকে। হিম হিম ঠান্ডায় নাকাল জনজীবন। শীতের এই তীব্রতা বেশি কাবু করেছে নিন্ম আয়ের মানুষদেরকে। শীতার্ত অসহায় ও দুস্থ মানুষের উষ্ণতা দিতে পাশে দাঁড়াল ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশন ৫৯ নম্বর কাউন্সিলর ও কদমতলী থানা আওয়ামী লীগের সাবেক ১নং যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক আকাশ কুমার ভৌমিক। বৃহস্পতিবার সকাল ১১টায় কদমতলীর মেরাজনগর সুপার মার্কেটে ৩হাজার কম্বল ও এক হাজার শাল চাঁদর বিতরন করা হয়েছে।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন ঢাকা মহানগর দক্ষিণ আওয়ামী লীগের সভাপতি বীরমুক্তিযোদ্ধা আলহাজ¦ আবু আহমেদ মন্নাফী। বিশেষ অতিথি ছিলেন ঢাকা মহানগর দক্ষিণ আওয়ামী লীগের যুগ্ন-সাধারন সম্পাদক মিরাজ হোসেন, সদস্য অ্যাডভোকেট আসমা আক্তার কেকা, আবুল বাশার, ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশনের সংরক্ষিত আসনের কাউন্সিলর সাহিদা বেগম, শ্যামপুর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাবেক সভাপতি কাজী মোঃ শহিদ উল্যাহ, সাবেক দপ্তর সম্পাদক মোঃ ওমর ফারুক, কদমতলী থানা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক জিহাদ মাতুব্বর,আম্বিয়া জাহান মুক্তা, মোর্শেদুজ্জামান, রতন দেওয়ান, বিলকিছ আক্তার কলি, মহানগর আওয়ামী লীগের অন্যান্য নেতৃবৃন্দসহ কদমতলী থানা ও ৫৯ নম্বর ওয়ার্ডের বিভিন্ন ইউনিট আওয়ামী লীগের নেতৃবৃন্দ ও এলাকার গন্যমান্য ব্যক্তিবর্গ। কম্বল বিতরন কর্মসূচী আগামী এক সম্পাহ যাবৎ ওয়ার্ডের বিভিন্ন এলাকায় চলমান থাকবে বলে জানিয়েছেন কাউন্সিলর আকাশ কুমার ভৌমিক।

শীতবস্ত্র বিতরণকালে অসহায় মানুষের উদ্দেশে অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি বলেন, বঙ্গবন্ধু একজন সাহসী নেতা ছিলেন। তাঁরই কন্যা জননেত্রী শেখ হাসিনা তার চেয়ে কোন অংশে কম সাহসী নয়, তিনি অত্যন্ত দূর্দান্ত সাহসী। ২১ বার ওনাকে হত্যা করার চেষ্টা করা হয়েছে। ২১ আগষ্ট গ্রেনেড হামলা করে তার মৃত্যু নিশ্চিত করার চেষ্টা করা হয়েছিল। পৃথিবীর সবচেয়ে উন্নতমানের আর্জেন্ট গ্রেনেড হলো শক্তিশালী সেই গ্রেনেড দিয়ে হত্যার জন্য হামলা করা হয়েছিল।

তিনি আরও বলেন, কাউন্সিলর আকাশ কুমার ভৌমিক একজন সৎ যোগ্য ও মানবিক কাউন্সিলর এবং যোগ্য নেতা। তিনি বুকভরা ভালোবাসা, শ্রদ্ধাবোধ, সম্মান ও সহমর্মিতা নিয়ে সবসময় মানুষের বিপদে আপদে এগিয়ে আসেন। শীতের সময় শীতবস্ত্র করোনা মহামারীসহ বিভিন্ন দুর্যোগে ও মুসলমানদের ঈদ উৎসবে মানুষের মাঝে কাপড়, খাদ্য সামগ্রী ও নগদ অর্থ বিতরণ করেন। আজকে তার কম্বল বিতরণে দেশের অন্যান্য এলাকার লোকজনও উৎসাহ পাবেন বলে মনে করি।

SHARE